| ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং | ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৩ই রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী | বুধবার

পাকিস্তানের ২৩ পরিবার থেকে ২৩ হাজার পরিবার সৃষ্টির জন্য বঙ্গবন্ধু এ দেশ স্বাধীন করেনি। নরসিংদী জেলা যুবলীগের সম্মেলনে শিল্প মন্ত্রী আমির হোসেন আমু

লক্ষন বর্মন, নরসিংদী :  বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে দেশের উন্নয়ন করা যায় না। ৫ তারিখের নির্বাচন না হলে দেশে সাংবিধানিক সংকটের সৃষ্টি হতো। খালেদা জিয়া দেশে সাংবিধানিক শূন্যতা সৃষ্টি করে দেশকে ধ্বংস করতে চেয়েছিলেন। শেখ হাসিনা সরকার ছাড়া দেশে কোন উন্নয়ন সম্ভব নয়।
তিনি রবিবার বিকালে নরসিংদী স্টেডিয়ামে নরসিংদী জেলা যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে একথা বলেন।
শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু আরও বলেন, শেখ হাসিনার শাসনামলেই তিস্তা চুক্তি সম্পাদিত হবে। ক্ষমতায় থাকাকালে খালেদা জিয়া ভারত সফর থেকে ফিরে সাংবাদিকদেরকে বলেছিলেন তিনি তিস্তার কথা ভুলে গিয়েছিলেন।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে দেশের মুক্তিযুদ্ধকে হত্যা করা হয়েছে। শেখ হাসিনাকে হত্যা করার জন্য ১৯ বার অপচেষ্টা চালানো হয়েছে। কিন্তু তাকে হত্যা করতে পারেনি। পাকিস্তানের ২৩ পরিবার থেকে ২৩ হাজার পরিবার সৃষ্টির জন্য বঙ্গবন্ধু এদেশ স্বাধীন করেননি। কারো ব্যক্তিগত স্বার্থে যেন দল ব্যবহৃত না হয়। কারো ব্যক্তিগত স্বার্থে দল যেন কালিমালিপ্ত না হয়, সে দিকে খেয়াল রাখার জন্য তিনি যুবলীগ নেতাকর্মীদের উপর আহবান জানান।
তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু দেশকে স্বাধীন করেছেন। তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাকে পূর্নাঙ্গ রূপ দিচ্ছেন।
সম্মেলনের উদ্বোধন করেন যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী। প্রধান বক্তা ছিলেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ।
সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী লে: কর্ণেল (অব:) মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম হিরু, মনোহরদী-বেলাব এমপি নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, শিবপুরের এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন ভূইয়া, নরসিংদী পৌর মেয়র কামরুজ্জামান কামরুল, শিবপুরের সাবেক এমপি জহিরুল হক ভূইয়া মোহন, পলাশের সাবেক এমপি ও পলাশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. আনোয়ারুল আশরাফ খান দিলীপ।
জেলা যুবলীগের সভাপতি একরামুল ইসলামের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান ভূইয়া, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বিজয় কৃষ্ণ গোস্বামী, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও নরসিংদী সরকারী কলেজের সাবেক ভিপি শামীম নেওয়াজ প্রমুখ।
যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার একটি শক্তিশালী সরকার হিসেবে দেশ বিদেশে পরিচিতি পেয়েছে। কিন্তু সরকার যতটা শক্তিশালী আমাদের দল ততটা শক্তিশালী নয়। দলকে সুসংগঠিত করার জন্য যুবলীগ নেতাকর্মীদেরকে এগিয়ে আসতে হবে। যুবলীগ যুবকদের সংগঠন। যুবক না হয়ে কেউ জ্ঞান অর্জন করতে পারে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের একমাত্র নেতা। যার ১০টি ব্রান্ডিং কর্মসূচী দেশকে উন্নতির চরম শিখড়ে নিয়ে যাবে। আর এতেই রয়েছে জনগনের কল্যান।
সম্মেলনে বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় বিজয় কৃষ্ণ গোস্বামী সভাপতি ও শামীম নেওয়াজ সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছে।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *