| ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৬ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী | রবিবার

নরসিংদীর চরাঞ্চল বাঁশগাড়িতে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে টেটাযুদ্ধ নিহত ২, আহত ২৫

লক্ষন বর্মন, নরসিংদী : আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নরসিংদীর রায়পুরার চরাঞ্চল বাঁশগাড়ীতে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী টেটাযুদ্ধ সংঘটিত হয়েছে। সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে আরুশ আলী ও জয়নাল নামে ২ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে কমপক্ষে ২০জন। প্রতিপক্ষ হামলায় ,ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে কমপক্ষে ৩০/৩৫টি বসত ঘরে। আজ দুপুরে জেলার রায়পুরা উপজেলার মেঘনা নদী বেষ্টিত চরাঞ্চল বাঁশগাড়ীতে এই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েণ করা হয়েছে। নিহত দুই জনই সাহেদ সরকারের সমর্থক।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বাশঁগাড়ী এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে যাবৎ বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল হক ও সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সাহেদ এর সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। গেল ইউপি নির্বাচনে বাশগাড়ী আওয়ামীলীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান সাহেদ পরাজিত হয়ওয়ার পর উভয় পক্ষের মধ্যে দন্ধ চরমে উঠে। ইউপি নির্বাচনে জয় পরাজয়কে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষ হয়। সংঘর্ষে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল হকের সমর্থকদের তোপের মুখে এলাকা ছাড়া হয়ে যায় সাহেদ সমর্থকরা। এই নিয়ে সাহেদ সমর্থকদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা চলে আসছিল। দীর্ঘ দিন গ্রাম ছাড়া থাকার পর গত মাসে সাহেদ সমর্থকরা গ্রামে ফেরার উদ্যেগ নেয়। এই খবরে সিরাজুল হক চেয়ারম্যানের সমর্থকদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে,তারা শক্তি সঞ্চয় করে শক্ত অবস্থান নেয়। এ নিয়ে গত মসে উভপক্ষের মধ্যে রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষে এক জন নিহত হয় আহত হয় শতাধিক। পরে প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করেন। প্রশাসনিক তৎপরতায় সাময়িক ভাবে বন্ধ হলেও কোন সমাধান হয়নি।
পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আজ সোমবার সকাল থেকেই উভয় পক্ষ সংঘর্ষের প্রস্তুতি নেয়। বেলা ১টার দিকে উভয় পক্ষ টেঁটা বল্লম,দা ,অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংষর্ষে জড়িয়ে । এতেগুলি বিদ্ধ হয়ে
দুই জন নিহত হয়। গুলিবিদ্ধ সহ আহত হয় কমপক্ষে ২০ জন। ওই সময় প্রতিপক্ষরা কমপক্ষে ৩০ থেকে ৩৫ টি বসত ঘরে ভাংচু ও অগ্নিসংযোগ করে। খবর পেয়ে রায়পুরা থানা পুলিশের পাশাপাশি জেলা সদর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ প্রেরন করা হয়েছে। এ রিপোট লেখা পযর্ন্ত থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছে।
নরসিংদী অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: শফিউর রহমান বলেন, পূর্ব শত্রুতা ও আধিপত্ব বিস্তারের জের ধরেই এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে কাজ করছে পুলিশ। এ পযর্ন্ত দুই জন নিহত হয়েছে । বেশ কয়েক জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *