| ১৮ই আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৬ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী | রবিবার

পলাশে অবৈধ নিষিদ্ধ বেটারি কারখানায় মোবাইল কোট

পলাশ প্রতিনিধি : নরসিংদীর পলাশ উপজেলায় নিষিদ্ধ বেটারি কারখানায় মোবাইল কোটে অভিযান চালিয়ে নগদ অর্থ জরিমানা আদায় করা হয়েছে । মঙ্গলবার দুপুরে গোপন সংবাদে নরসিংদী পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মো: আব্দুল গফুর ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নির্বাহী ম্যাজিস্টেট অমিত দেবনাথ এক সাথে থেকে মোবাইল কোট পরিচালনা করেন ।
পলাশ উপজেলার দক্ষিণ দেওড়া গ্রামের ফুলবাড়িয়া এলাকায় নিষিদ্ধ শীউয়েন বেটারি কারখানা নামক প্রতিষ্ঠান কে নগদ ৫০০০০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় । নিষিদ্ধ বেটারি কারখানার মালিকের (পক্ষে) প্রতিনিধি সিরাজ হোসেন পিতা আফতার ইসলাম,সাং ধানুয়া জেলা কুমিল্লা কে এ অর্থ দন্ডে দন্ডিত করা হয় ।
এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নির্বাহী ম্যাজিস্টেট অমিত দেবনাথ সাংবাদিকদের জানান, অবৈধ নিষিদ্ধ বেটারি কারখানার এসিডের বিষাক্ত পানিতে দক্ষিণ দেওড়ার গ্রামের কয়েক একর ধান ক্ষেত পুঁড়ে ছাড়খার হয়ে হয়ে গেছে । বিলিন হয়ে গেছে ঐ এলাকার পরিবেশ শিল্প। পরিবেশের কতটা ক্ষতি হচ্ছে ভিতরে গিয়ে নিজ চোখে না দেখলে বিশ্বাস করাটা খুবই কঠিন।
তিনি বলেন,ইতি মধ্যে আমাদের পলাশ উপজেলার নির্বাহী অফিসার মাহমুদা আক্তার স্যার ও নিজে গিয়ে পরির্দশণ করে অবৈধ-নিষিদ্ধ বেটারি কারখানাটি বন্ধ রাখার কথা বলে ছিলেন । কিন্তু স্যারের কথা না শুনেই আবার ও অবৈধ ভাবে বেটারি তৈরি করছিল প্রতিষ্ঠানটি।
অমিত দেবনাথ আর ও জানান, বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ এর ৬(ক),১৫এর (ক) ৪(খ) লাইসেন্স ব্যতীত নিষিদ্ধ জ্বালানী ব্যবহার বাংলাদেশ পরিবেশ আইন ,২০১৩ এর ৪/৬/ও৮ ধারায় অভিযুক্ত প্রমাণিত। পরিবেশের ছাড়পএ নেই ১২(ক),১৫(ক)এর ৪ (খ) ধারা। তা ছাড়া উদ্যান প্রাকৃতিক জলাধার সংরক্ষণের জন্য প্রণীত আইন এবং প্রাকৃতিক সংরক্ষণ এর জন্য প্রণীত আইন ২০০০ এর ৫ ধারায় সব আইন গুলো অমান্য করে বেটারি কারখানাটি পরিবেশের বিরাট ক্ষতি সাধন করছে ।

# এলবি/টিপি

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *