1. nahidprodhan143@gmail.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  2. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  3. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  4. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  5. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  6. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
  7. subeditor@narsingdipratidin.com : Narsingdi Pratidin : Narsingdi Pratidin
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৩:১২ অপরাহ্ন



নরসিংদীতে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের দৌড়-ঝাপ, আসন ধরে রাখতে ব্যাস্ত আওয়ামীলীগ,পুনরুদ্ধারে মরিয়া বিএনপি, কোন্দলে জর্জড়িত বড় দুই দল

ডেস্ক রিপোর্ট | নরসিংদী প্রতিদিন
  • প্রকাশের তারিখ | শনিবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৭

লক্ষন বর্মন, নরসিংদী প্রতিদিন: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সরব হয়ে উঠেছে নরসিংদীর রাজনৈতিক অঙ্গন। কেন্দ্রে বাড়ছে লবিং তদবির। প্রার্থীতা জানান দিতে ইতোমধ্যেই মনোনয়ন প্রত্যাশীরা মাঠে নেমে পড়েছেন। জনগনের কাছাকাছি পৌছতে পাল্লা দিয়ে চালাচ্ছে মসজিদ মাদ্ররাসায় অনুদান দেয়া সহ সামাজিক কর্মকান্ড। জেলা উপজেলার গুরুত্বপূর্ন স্থান গুলোতে বড় দুই দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ব্যানার ফ্যাসটুন ও প্লে কার্ড সাটানো হয়েছে। কোথাও কোথাও কোরবানী ঈদের আগাম শুভেচ্ছা দিয়ে দেয়ালে দেয়ালে পোস্টার লাগানো হয়েছে। সামাজিক কর্মকান্ড ও গনসংযোগের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকেও সরব প্রচারনা চালাচ্ছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। জেলার হেভী ওয়েট প্রার্থীদের আসনে হানা দিতে আওয়ামীলীগ ও যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতারা মাঠ চষছেন। বিতর্কিত ও পুরোনোদের হটিয়ে স্থলাভিশিক্ত হতে চাইছেন রাজপথ কাপানো ছাত্রনেতারা।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে চ্যালেঞ্জে নেমেছেন বড় দুই দল। এক সময়ের বিএনপির ঘাটি হিসেবে পরিচিত নরসিংদীর ৫টি আসন পুনরুদ্ধারে মরিয়া স্থানীয় বিএনপি। সাংঘঠনিক দূর্বলতা দূরিকরন সহ ও মামলার জট খোলে ঘুড়ে দাড়াতে চাইছেন বিএনপি। সংগ্রহ করা হচ্ছে নতুন সদস্য। এদিকে নবম ও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৫টি আসনে নিরঙ্কুস ভাবে বিজয় লাভ করে আওয়ামীলীগ। বিজয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে ব্যাস্ত স্থানীয় আওয়ামীলীগ। পাড়া-মহল্লায় সাংগঠনিক কার্যক্রম জোড়দার করতে যুবলীগ সহ আওয়ামীলীগের অঙ্গ সংঘঠন গুলোকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে। এতে বাদ পড়ছেন জেলার অনেক ত্যাগী নেতাকর্মীরা। তাই বড়ছে দলীয় কোন্দল। অপর দিকে আওয়ামীলীগের রাজনিতিতে নিজেদের আধিপত্ব ধরে রাখতে পেশাদার খুনি,সন্ত্রাসী,মাদক ব্যাবসায়ীরদে দলে স্থান দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ত্যাগী নেতারা। স্থান দেয়া হচ্ছে জাতীয় পার্টি ও বিএনপি সমর্থিতদের। তাই বির্তক কুড়িছেন দলের স্থানীয় আওয়ামীলীগের নিতি নির্ধরকরা। অণ্যদিকে জেলা আওয়ামীলীগের পোড় খাওয়া নেতারা দলে স্থান না পাওয়ায় দলটিতে রয়েছে অন্ত কোন্দল । নিজেদের বলয় ধরে রাখতে আওয়ামীলীগের রাজনিতির সাথে জড়িত কোন কোন নেতাদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়ার অভিযোগ করেছেন নেতারা। যা আগামী নির্বাচনে বোমেরাং হয়ে দাড়াতে পাড়ে বলে মনে করছেন রাজনিতিক বিশ্লেষকরা। তবে দলের বিশৃংখ্যলা এড়িয়ে সকলকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে গুরুত্ব পূর্ন ভূমিকা পালন করছেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম। তবে নানা বিতর্কিত কর্মকান্ডের জন্য মনোনয়ন হারাতে পারেন জেলার বেশ কয়েকজন সাংসদ। সে সব আসনে স্থালাভিশিক্ত হতে স্বপ্ন দেখছেন নতুন মুখ।
এদিকে স্থানীয় বিএনপির কতৃত্ব ও নেতৃত্ব নিয়ে খোকন ও ড.মঈন খানের মধ্যে রয়েছে শীতল স্থায়ু যুদ্ধ। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে জেলা বিএনপির নেতৃত্ব হাতে নিতে চায় এক সময়ের সংস্কারপন্থি হিসেবে পরিচিত বিএনপির সাবেক সাংসদ সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী।
নরসিংদী-১ সদর আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি,বর্তমান সাংসদ ও ক্ষমতাশীন দলের পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম ( বীর প্রতিক)। তার সাথে প্রতিদন্দী হিসেবে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আইয়ুব খাঁন। রাজনৈতিক মাঠে তেমন তৎপরতা চোখে না পড়লেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম হীরুর বিভিন্ন ব্যর্থতা তুলে ধরে আগামী সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীতার জানান দিচ্ছেন।
আইয়ুব খাঁন বলেন, নরসিংদীতে একদিকে খুনিদের রাজনৈতিক আশ্রয় দেয়া হচ্ছে অন্যদিকে নিরপরাধ নেতা-কর্মীদেরকে হত্যাসহ বিভিন্ন মামলা দিয়ে হয়রানী করা হচ্ছে। দল গঠনে ত্যাগী নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন করা হয়নি উল্টো বিএনপি-জামায়াতের নেতা-কর্মীদের পূর্ণবাসন করেছেন। এ কারণেই সদর আসনে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ও সাধারণ মানুষ নেতৃত্বে পরিবর্তন চাচ্ছে।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম (বীর প্রতিক) বলেন, পূর্বের যে কোন সময়ের চেয়ে নরসিংদী আওয়ামী লীগ এখন অনেকটা সুসংগঠিত। তাছাড়া আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে নরসিংদীতে সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন হয়েছে। দুই লক্ষ চারাঞ্চলবাসীর প্রত্যাশা পূরনে মেঘনা নদীর উপর নিমির্ত ব্রিজ অতি সম্প্রতি উদ্ধোধন করা হবে। কোন্দল প্রসংগে তিনি বলেন,কেউ কেউ নিজ স্বার্থ হাসিলের জন্য দলের মধ্যে বিশৃংখলার চেষ্টা চালাচ্ছে। এসব করে জেলা আওয়ামীলীগকে ক্ষতিগ্রস্থ করতে পারবে না। মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সরকার জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নরসিংদীতে উন্নয়ন চলামন থাকবে।
তবে সব কিছুকে পাশ কাটিয়ে সদর আসন থেকে নির্বাচন করার আলোচনায় নরসিংদী-০২ আসনের সংসদ সদস্য কামরুল আশরাফ খাঁন পোটন। সম্প্রতি রাজনৈতিক অঙ্গনে গুঞ্জন রয়েছে , বড় ভাই সাবেক সংসদ সদস্য ডা. আনোয়ারুল আশরাফ খাঁন দিলীপকে নিজ আসন ছেড়ে দিয়ে সদর আসনে প্রার্থী হতে পারেন নরসিংদী-০২ আসনের সংসদ সদস্য কামরুল আশরাফ খাঁন পোটন। তাছাড়া আওয়ামীলীগের এক অংশের নেতারা পোটনকে সদর আসনে আনতে উঠে পড়ে লেগেছেন।
কামরুল আশরাফ খাঁন পোটন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি চায় তাহলে আমি নির্বাচন করবো। এই ব্যাপারে নেত্রীর সিদ্ধান্তই আমার সিদ্ধান্ত।
নর¬সিংদী সদর আসনে বিএনপির প্রার্থী বিএনপির যগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন অনেকটাই নিশ্চিত। এই আসনে তার বিকল্প কোন নেতা নেই বলইে চলে।
নরসিংদী -২ পলাশ অসনের বর্তমান এমপি কামরুল আশরাফ খাঁন পোটন আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বড় ভাই সাবেক সংসদ সদস্য ডা. আনোয়ারুল আশরাফ খাঁন দিলীপকে নিজের আসন ছেড়ে দিচ্ছেন এটা নিশ্চিত।
তবে আওয়ামীলীগের টিকিট পেতে উৎ পেতে রয়েছেন মহাজোটের শরীক দল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক জায়েদুল কবির ।
এই আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন অনেকটা নিশ্চিত হিসেবে রয়েছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান। এই আসনে তার বিকল্প কোন কেনডিডেট নেই বললেই চলে।

নরসিংদী -৩ শিবপুর আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন বর্তমান এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা। আণ্যান্যদের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য জহিরুল হক ভূইয়া মোহন, মাহবুবুর রহমান ভূঞা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামসুল আলম রাখিল। গেল নির্বাচনে টি আর কাবিখা লুটপাট সহ বেশ কিছু বিতর্কের কারনে সিরাজুল ইসলাম মোল্লার নিকট পারাজিত হয় জহিরুল হক ভূইয়া মোহন।
নরসিংদী-০৩ (শিবপুর) আসনের সংসদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম মোল্লা বলেন, বির্তকের উর্দে থেকে এলাকায় শতভাগ বিদুৎতায়ন,সড়ক সংস্কার সহ ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে। তাই এই আসন থেকে প্রধানমন্ত্রী আমাকেই মনোনয়ন দেবন বলে আমি বিশ্বাস করি।
বিএনপি মনোনয়নের তালিকায় রয়েছেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মাস্টার,জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী। তবে এই দুই নেতার বিরুদ্ধে বিএনপির আন্দোলনের ভরা মৌসুমে বিদেশে গা-ঢাকা দেয়ার অভিযোগ রয়েছে দলের নেতাকর্মীদের। অন্যদিকে কেন্দ্রীয় বিএনপির গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও বেগম খালেদা জিয়ার আইন জীবি এ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া রয়েছে আলোচনায়। কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান ও কেন্দ্রীয় কৃষক দলের সহ-সভাপতি শহিদুজ্জামান পৃথকভাবে দলীয় কর্মকান্ড সহ গন সংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

নরসিংদী-০৪ (মনোহরদী-বেলাব) আসনে আওয়ামীলীগ থেকে রয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ন। কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সহ-সম্পাদক ডা. আব্দুর রউ্ফ সরদার, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-শিক্ষা সম্পাদক ছাত্র নেতা কাজী মোঃ মাজহারুল ইসলাম,মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকায় রয়েছেন মনোহরদী উপজেলা চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বীরু।
বিএনপি থেকে রয়েছেন কেন্দ্রীয় বিএনপির মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক কর্ণেল (অব.) জয়নাল আবেদীন।
মাঠে আছেন সংস্কারপন্থি নেতা ও সাবেক সাংসদ সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল। সেই সঙ্গে নতুন করে কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভূঞা জুয়েল দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়িয়ে মনোহরদী-বেলাবতে নিজের উপস্থিতি জানান দিচ্ছেন। অন্যদিকে স্থানীয় রাজনীতিতে তেমন সরব না থাকলেও যে কোন সময় জাতীয় রাজনীতিতে সক্রিয় হতে পারেন সাবেক ছাত্রনেতা সানাউল হক নীরু।

আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত নরসিংদী-০৫ (রায়পুরা) আসন থেকে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য রাজি উদ্দিন আহমেদ রাজু সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন পাঁচবার। বর্তমান সরকারের শুরুতে তিনি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এবং জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত ছিলেন। নেত্রী চাইলে আগামীতেও তিনি নির্বাচন করবেন বলে মত প্রকাশ করেছেন।

কিন্তু রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজুর বার্ধক্য ও বিতর্কিত কার্য্যকলাপের দুর্বলতার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে দলীয় মনোনয়ন লাভের চেষ্টায় মাঠে রয়েছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য এডভোকেট রিয়াজুল কবির কাওছার,যুবলীগের সাধারন সম্পাদক হারুন-অর-রশিদ ও দলীয় নেত্রী শেখ হাসিনার আতœীয় পরিচয়ে ব্যারিস্টার তৌফিকুর রহমান। অপরদিকে রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজুর ছোট ভাই সালাহ উদ্দিন আহমেদ বাচ্চুও চেষ্টা করছেন দলের মনোয়ন পাওয়ার জন্য। লাইনে রয়েছেন রায়পুরা উপজেলা আওয়ামীলীগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ পার্থ।
বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন জামাল আহমেদ চৌধুরী, বিএনপির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সহ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আশরাফ উদ্দিন। উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ কে নেছার উদ্দিন,সাবেক হুইপ মাইনুদ্দিন ভ’ইয়ার ছেলে বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ- সভাপতি মো: শাহআলম।

এই পাতার আরও সংবাদ:-





টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-
Theme Customized BY WooHostBD