1. nahidprodhan143@gmail.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  2. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  3. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  4. narsingdipratidin.mail@gmail.com : narsingdi :
  5. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  6. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
  7. subeditor@narsingdipratidin.com : Narsingdi Pratidin : Narsingdi Pratidin
রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০৫:১৫ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নরসিংদীতে সুইড বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করলেন এমপি বুবলী দুর্গোৎসব উপলক্ষে সেভ লাইফ ব্লাড ডোনার্স ক্লাবের উদ্যোগে শিশু মেলা ও খাদ্য বিতরণ নরসিংদীতে থার্মেক্স গ্রুপের সামনে মটরসাইকেল থেকে ছিটকে পরে মা ও শিশু সন্তান নিহত বড় উৎসবকে টার্গেট করে দেশব্যাপী জাল টাকা ছড়িয়ে দিত চক্রটি নরসিংদীতে পূজা মন্ডপে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী উপহার,মনিটরিং সেল ও বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা কেন্দ্র উদ্বোধন শারদীয় দূর্গাপূজা উপলক্ষে খাদ্য সামগ্রী,বস্ত্র ও নগদ অর্থ বিতরণ করলেন ইউ.পি চেয়ারম্যান ঝালকাঠি সদর  উপজেলার তিন ভূমি অফিস পরিদর্শন করলেন উপ-ভূমি সংস্কার কমিশনার নিসচা মাধবদী থানা শাখার উদ্যোগে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উদযাপন আজ মহাষষ্ঠী : ঢাকের বাদ্য-উলুধ্বনির মধ্য দিয়ে দেবী দুর্গার মর্ত্যে আগমন রায়পুরায় ৫৫ পূজামন্ডবকে আর্থিক অনুদান প্রদান

কোচিং পরিচালককে পেটালেন সেই ছাত্রলীগ নেতা

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল, ২০১৮

নিউজ ডেস্ক,নরসিংদী প্রতিদিন,বৃস্পতিবার,১৯ এপ্রিল ২০১৮: চট্টগ্রামে এবার ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের পরিচালক মোহাম্মদ রাশেদ মিয়াকে (৩৮) মারধরের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। মারধরকারী হলেন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি। এর আগে চলতি বছরের ৩১ মার্চ চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষ ড. জাহেদ খানকে তার অফিস কক্ষে ছাত্রলীগ নেতা রনি প্রকাশ্যে কিল-ঘুষি মারেন। তখন সে ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। মারধরের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরই রনি ছাত্রলীগ থেকে গতকাল অব্যাহতি চান। আর ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ জানিয়েছেন রনিকে দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

রাশেদকে মারধরের যে ভিডিও প্রকাশ হয় তাতে দেখা যায়, রাশেদ মিয়াকে চড়-থাপ্পড় মারা হচ্ছে।
এ ঘটনায় ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের পরিচালক রাশেদ মিয়া বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের পাঁচলাইশ মডেল থানায় একটি জিডি করেছেন। রাশেদ মিয়ার পক্ষ থেকে রনি ও তার সহযোগী নোমানের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন পাঁচলাইশ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মহিউদ্দিন মাহমুদ।

ওসি গতকাল জানান, ইউনিএইড নামে একটি কোচিং সেন্টারের চট্টগ্রাম অফিসের পরিচালক মোহাম্মদ রাশেদ মিয়া একটি অভিযোগ জমা দিয়ে গেছেন নুরুল আজিম রনি ও নোমান চৌধুরী রাকিবের বিরুদ্ধে। আমরা ঘটনার তদন্ত করছি।

চট্টগ্রামের এই ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে নির্বাচনে অস্ত্রবাজি করারও অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় তিনি গ্রেপ্তার হয়ে কারাবাসও করেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার পাঁচলাইশ মডেল থানায় দায়ের করা এজাহারে বাদী ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের চট্টগ্রাম অফিসের পরিচালক মোহাম্মদ রাশেদ মিয়া অভিযোগ করেন, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি ও নোমান চৌধুরী রাকিব জোরপূর্বক বাদীর অফিস ব্যবহার করতেন। বিভিন্ন সময় নানা অজুহাতে অনুষ্ঠানের কথা বলে জোরপূর্বক টাকা-পয়সা নিয়ে যেতেন।

এক পর্যায়ে রনি তার কাছে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। ২০ লাখ টাকা চাঁদার দাবিতে গত ১৭ ফেব্রæয়ারি চট্টগ্রামের জিইসির অফিসে এসে মারধর করেন। যার প্রমাণ হিসেবে তিনি সিসিটিভির ফুটেজ উপস্থাপন করেন। ২০ লাখ টাকার দাবিতে সেদিন প্রায় ১০ মিনিট মারধরের পর ১ মাসের সময় বেঁধে দেন বলেও তিনি এজাহারে উল্লেখ করেছেন।

রাশেদ মিয়া তার অভিযোগে দাবি করেন, তিনি দীর্ঘদিন পালিয়ে পালিয়ে অফিস-বাসা যাতায়াত করছিলেন। কিন্তু ১৩ এপ্রিল রাত ৯টার দিকে মুরাদপুরের মাজার এলাকা থেকে তাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় রনির মুরাদপুরের অ্যালুমিনিয়াম গলির বুড়ি পুকুর পাড়ে।
সেখানে তাকে চাঁদার ওই ২০ লাখ টাকার দাবিতে বেদম মারধর করা হয়। রাশেদ মিয়ার অভিযোগ, টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে বলা হয়, হয় টাকা দিবি, নয় জানে মেরে ফেলব। এ সময় হকিস্টিক দিয়ে মাথায় বাড়ি দেয়। এতে বাম কানে আঘাত লেগে এখন ওই কানে তিনি কিছুই শুনতে পান না।

পরে সেখান থেকে রাত সাড়ে এগারটার দিকে রাশেদের সুগন্ধা আবাসিক এলাকার বাসায় নিয়ে গিয়ে রনি ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা ৩৫ হাজার টাকা ও তার (রাশেদ) এবং তার স্ত্রীর পাসপোর্ট নিয়ে আসেন।

ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের পরিচালক মোহাম্মদ রাশেদ মিয়া বলেন, আমি দীর্ঘদিন রনি ও তার সাঙ্গপাঙ্গের অত্যাচারে অতিষ্ঠ।
রনি চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। তাই মুখ বুঝে সব সহ্য করে আসছিলাম। কিন্তু এখন একসঙ্গে ২০ লাখ টাকার চাঁদা দেওয়া এবং আমাকে মারধর করার ঘটনা সহ্যের বাইরে চলে গেছে। বিশেষ করে আমি তাদের মারের কারণে বর্তমানে আমার বাম কানে শুনতে পাই না। তাই আমি বাধ্য হয়েছি তাদের বিরুদ্ধে মামলা করতে। তিনি এ ঘটনায় অভিযুক্তদের যথাযথ বিচার দাবি করেছেন।

তবে, অভিযোগের ব্যাপারে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বলেন, মোহাম্মদ রাশেদ মিয়া আমার ব্যবসায়িক পার্টনার এবং বন্ধু। আমরা এক সঙ্গে কোচিং সেন্টার চালাই।

ব্যবসায়িক বন্ধুবান্ধব হিসেবে বিভিন্ন সময় নানা মতের মিল-অমিল হয়েই থাকে। সেটা বড় বিষয় নয়। কিন্তু রাশেদ আমার সাড়ে ৯ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

রনি আরও বলেন, গত ১৩ এপ্রিল আমাকে টাকা দেওয়ার তারিখ ছিল। কিন্তু রাশেদ আত্মগোপনে ছিলেন। হঠাৎ করে ১৮ এপ্রিল চট্টগ্রামের একজন সিনিয়র আওয়ামী লীগ নেতার বাসায় যান রাশেদ। সেখান থেকে ফিরে গতকাল থানায় অভিযোগ দেওয়ার কথা শুনেছি।
ওই নেতার নাম জানতে চাইলে রনি নাম উল্লেখ না করে বলেন, চট্টগ্রামের রাজনীতি এখন নোংরা হয়ে গেছে। সব কিছুতে রাজনীতি টেনে আনা হচ্ছে। আমার এই ঘটনায়ও রাজনীতি টেনে আনা হচ্ছে।

রনিকে ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি
চাঁদার দাবিতে মারধরের ভিডিও প্রকাশের পর সংগঠন থেকে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনিকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
সোহাগ বলেন, তাৎক্ষণিকভাবে যেসব তথ্য-উপাত্ত পাওয়া গেছে, তাতে মনে হয়েছে রনি অপরাধী। এজন্য তাকে ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এর আগেই অবশ্য রনি ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর হাতে লেখা অব্যাহতিপত্র পাঠান।
এতে রনি উল্লেখ করেন, পিতা মুজিবুরের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম মহানগরের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে একান্ত ব্যক্তিগত কারণে আমি সজ্ঞানে অব্যাহতি নিলাম।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ৩১ মার্চ রনি কর্তৃক চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষ ড. জাহেদ খানকে তার অফিস কক্ষে প্রকাশ্যে কিল-ঘুষি মেরে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল।
চট্টগ্রামের এই ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে নির্বাচনে অস্ত্রবাজি করারও অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় তিনি গ্রেপ্তার হয়ে কারাবাসও করেছিলেন। বর্তমানে তিনি ওই মামলায় জামিনে রয়েছেন।

তার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া অস্ত্র মামলায় আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে।
চার্জশিটে রনির কাছ থেকে একটি ৭ দশমিক ৬৫ বোরের পিস্তল ও আট রাউন্ড গুলি পাওয়া গেছে বলে উল্লেখ করা হয়।
৭ মে হাটাহাজারী উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টার সময় অস্ত্রসহ আটক হন নুরুল আজম রনি।
এই ঘটনায় অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের ছাড়াও নির্বাচনী আচরণবিধি লক্সঘনের অভিযোগে রনিকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

প্রয়োজনে ফোন করুন- ০১৭১৩৮২৫৮১৩

শাহিন আইটির একটি অঙ্গ-প্রতিষ্ঠান