1. nahidprodhan143@gmail.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  2. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  3. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  4. narsingdipratidin.mail@gmail.com : narsingdi :
  5. news@narsingdipratidin.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  6. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  7. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
  8. subeditor@narsingdipratidin.com : Narsingdi Pratidin : Narsingdi Pratidin
বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:০২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :



মেসিকে আটকে রাখার কৌশল ফাঁস করলেন ফ্রান্স কোচ

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত রবিবার, ১ জুলাই, ২০১৮

স্পোর্টস ডেস্ক,নরসিংদী প্রতিদিন,রবিবার, ১ জুলাই ২০১৮: লিওনেল মেসি একাই হারিয়ে দিতে পারেন ফ্রান্সকে, ম্যাচের আগে এমন কথা শোনা গেছে। এটা আসলে কথার কথা। ফুটবলে একা কিছু করা যায় না। তবে মেসির মতো খেলোয়াড়কে আটকাতে আলাদা পরিকল্পনা করতেই হয় প্রতিপক্ষ দলকে। যেমনটা শনিবার রাতে করেছে ফ্রান্স। দলের কোচ দিদিয়ের দেশম এবার ফাঁস করে দিলেন, কি ছিল তাদের পরিকল্পনা।

দ্বিতীয় রাউন্ডের কঠিন লড়াইয়ে ৪-৩ গোলে জিতে আর্জেন্টিনাকে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় করে দিয়েছে ফ্রান্স। ম্যাচে মেসিকে অনেকটাই নিষ্প্রভ করে রাখে তারা। যদিও বার্সা সুপারস্টার দুটি অ্যাসিস্ট করেছেন, কিন্তু গোলের দেখা পাননি।

ম্যাচ তো শেষ। এখন আর মেসির সামনে পড়ার সম্ভাবনা নেই। তাই মেসিকে আটকে রাখার কৌশলটা ফাঁসই করে দিলেন ফ্রান্স কোচ দেশম। তিনি বলেন, ‘মনে হয়, আমার আর্জেন্টাইন প্রতিপক্ষ আমাদের সেন্ট্রাল মিডফিল্ডারদের কাছ থেকে আরও একটু বেশি স্বাধীনতা চেয়েছিলেন। তবে আমরা তাকে নিষ্ক্রিয় করে রাখতে পেরেছি। (এনগুলো) কান্তে সবসময় তাকে মার্ক করে রেখেছে। যখন সে বল পেয়েছে একজন তার সঙ্গে থেকেছে, আরেকজন তার পেছনে।’

মেসির সঙ্গে দলের হাভিয়ের মাচেরানো আর এভার বানেগার যোগসূত্রটা ভালোভাবেই জানা ছিল দেশমের। সেভাবে পরিকল্পনা করেই দলকে মাঠে নামিয়েছিলেন তিনি। ফ্রান্স কোচ বলেন, ‘তাকে এককভাবে সতর্ক প্রহরায় রাখতে হয়েছিল। আমরা মাচেরানো, বানেগা আর মেসির মধ্যে যোগসূত্রের বিষয়টি জানতাম। সেটাও জানতাম, মেসিকে প্রভাব বিস্তার না করতে দিতে বাকি দুইজনকেও আটকে রাখা প্রয়োজন।’

follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
শাহিন আইটির একটি অঙ্গ-প্রতিষ্ঠান