1. nahidprodhan143@gmail.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  2. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  3. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  4. narsingdipratidin.mail@gmail.com : narsingdi :
  5. news@narsingdipratidin.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  6. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  7. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
  8. subeditor@narsingdipratidin.com : Narsingdi Pratidin : Narsingdi Pratidin
বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:৩৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :



সড়কের দুরবস্থা ও দুর্ঘটনার দায়ে বুলগেরিয়ার তিন মন্ত্রী বরখাস্ত

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত রবিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নরসিংদী প্রতিদিন,রবিবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৮:
বুলগেরিয়ায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় ১৭ জন নিহত হওয়ার পর দেশটির তিন মন্ত্রীকে বরখাস্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী বয়কো বারিসভ। সড়কের দুরবস্থার দায় রাজনীতিবিদদের নিতে হবে- এই যুক্তিতে তিন মন্ত্রীকে সরে যেতে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী বারিসভ। পরে দুর্ঘটনার দায় নিয়ে ইস্তফা দেন দেশটির পরিবহনমন্ত্রী ইভাইলো মস্কোভস্কি, আঞ্চলিক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী নিকোলাই নানকভ এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ভ্যালেন্তিন রাদেভ।

এক সংবাদ সম্মেলনে রাদেভ বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে এর দায় আমরা নিচ্ছি, আমরা পদত্যাগ করছি। এ ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে যা করা দরকার ছিল, তা আমরা করতে পারিনি।’ গত ২৫ আগস্ট রাজধানী সোফিয়ার কাছে ভোজে এলাকায় একটি বাস দুর্ঘটনায় পড়লে ১৭ জন নিহত হন, আহত হন ২০ জন। ওই দুর্ঘটনার পর থেকে প্রতিদিনই রাস্তার দুরবস্থা নিয়ে বিক্ষোভ দেখিয়ে আসছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

তাদের অভিযোগ, সরকারের অবহেলায় ওই সড়ক চলাচলের অনুপযুক্ত হয়ে পড়েছে। সত্তর লাখ মানুষের দেশ বুলগেরিয়ায় দুর্ঘটনার হার ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। গত বছর সেখানে ৬৪৮ জনের প্রাণ গেছে সড়ক দুর্ঘটনায়। চলতি বছর বেশ কয়েকটি দুর্ঘটনার পর সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দানা বাঁধতে শুরু করে। বিরোধী দলে থাকা সোশালিস্টরা বারিসভের কোয়ালিশন সরকারের পদত্যাগেরও দাবি তোলে। তাদের যুক্তি, পরিবহন খাতে সরকারের দুর্নীতির কারণেই দুর্ঘটনায় প্রাণহানি বাড়ছে। খবর রয়টার্সের

follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
শাহিন আইটির একটি অঙ্গ-প্রতিষ্ঠান