| ২২শে মে, ২০১৯ ইং | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৬ই রমযান, ১৪৪০ হিজরী | বুধবার

ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক নির্বাচিত সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক নির্বাচিত হয়েছেন নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন। তিনি জাতীয় শিক্ষা পদক ২০১৮ এ ভূষিত হয়েছেন। সোমবার ঢাকা বিভাগের প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগীয় উপ-পরিচালকের কার্যালয় হতে প্রেরিত পত্রে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

পত্রে উল্লেখ করা হয়েছে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক ২০১৮ তে ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক-শিক্ষিকা, বিদ্যালয়, ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণের মধ্যে ১৯ জনকে নির্বাচিত করা হয়েছে। এর মধ্যে কর্মকর্তা ক্যাটাগরীতে নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন ঢাকা বিভাগের শ্রেষ্ঠ জেলা প্রশাসক নির্বাচিত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, ১১ মার্চ ২০১৮ নরসিংদীতে জেলা প্রশাসক হিসেবে যোগদান করেছেন সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন। ১৯৮৪ সালে নরসিংদী জেলা প্রতিষ্ঠার পর প্রথমবারের মতো নারী জেলা প্রশাসক হিসেবে তিনি নরসিংদীতে যোগদান করেছেন। তিনি নরসিংদীর ১৭তম জেলা প্রশাসক। নরসিংদীতে যোগদান করে তিনি আরো কয়েকজন নারী কর্মকর্তাকে সহযোগী হিসেবে পেয়েছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুষমা সূলতানা, সিনিয়র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লুবনা ফারজানা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জাকিয়া সুলতানা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেহের নিগার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা বেগম প্রমূখ। জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন’র আগে ১৬ জন জেলা প্রশাসকই ছিলেন পুরুষ। জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন প্রশাসন ক্যাডারের ২০তম ব্যাচের একজন কর্মকর্তা।

তিনি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে কর্মরতকালীন সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের ২০১১-২০১২ অর্থ বছরের কর্মকান্ড মূল্যায়নের প্রেক্ষিতে দেশের সেরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার হওয়ার গৌরব অর্জন করেন। ২০১৩ সালে তিনি ঢাকা জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) হিসেবে কর্মরত থাকাবস্থায় ২০১৩ সালের ৯ অক্টোবর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকান্ড উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের মধ্যে দেশের প্রথমস্থান অর্জনকারী ইউএনও সৈয়দা ফারহানা কাউনাইনকে পুরস্কৃত করেন।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *