নরসিংদীতে ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা

নরসিংদী প্রতিদিন,সোমবার, ২৯ অক্টোবর ২০১৮:
দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী দেশীয় খেলাধুলা। বিদেমি সংস্কৃতির ঢাকঢোলে হারাচ্ছে দেশীয় সংস্কৃতি। দেশীয় সংস্কৃতি ধরে রাখতে নরসিংদীতে হয়ে গেল ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা। ঘোড়দৌড় প্রতিযোগীতা দেখতে হাজারো মানুষের ঢল নামে খেলা প্রাঙ্গণে। উৎসব মুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। সুস্থধারার বিনোদন ও মাদকমুক্ত সমাজ গড়ার প্রত্যয়ে গ্রামীণ অঞ্চলে এই খেলার আয়োজন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তরা।

কামাল মাস্টার স্মৃতি সংঘের আয়োজনে শনিবার বিকেলে মনোহরদী উপজেলার একদুয়ারিয়া ইউনিয়নের একদুয়ারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয় । প্রতিযোগিতা শেষে ঘোড় চালনায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে বিজয়ীদের পুরস্কারের মধ্যদিয়ে এই অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন একদুয়ারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আনিসুজ্জামান নিটুল।

ঘোড়দৌড় প্রতিযোগীতা উপভোগ করতে বিভিন্ন শ্রেনী পেশার কয়েক হাজার নারী-পুরুষ উপস্থিত হয় । প্রতিযোগীতাকে ঘিরে এলাকায় উৎসব মুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। ধুলোময় মাঠে এই ঘৌড়দৌড়ে অংশ নিতে নরসিংদী, গাজীপুর, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ ও সিলেট থেকে ঘোড়া নিয়ে হাজির হয় প্রতিযোগিরা। তিনটি গ্রুপে ভাগ হয়ে লড়াইয়ের জন্য মাঠে নামে ১৬টি ঘোড়া। ঘোড়দৌড় দেখতে স্থানীয় স্কুল মাঠে আশপাশের গ্রামের বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষের ঢল নামে। এতে পুরো এলাকায় উৎসবমুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। জয়ের লক্ষ্যে প্রতিযোগিদের অদম্য চেষ্টা ও ঘোড়ার ক্ষিপ্ত দৌড় উপভোগ করে উপস্থিত দর্শকরা। এমন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে গ্রামবাংলার ঐহিত্যবাহী খেলাগুলো সকলের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়া গেলে একদিকে যেমন বাঙ্গালির ঐতিহ্য রক্ষা হবে অপরদিকে যুব সমাজের অবক্ষয় দূর হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

মনোহরদী একদুয়ারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামান নিটুল বলেন, এই খেলাটা আমাদের গ্রাম বাংলার একটা ঐতিহ্যবাহী খেলা। এই খেলা এখন প্রায় বিলুপ্তির পথে। এই খেলাটা যদি গ্রামের প্রতিটা এলাকায় আয়োজন করে যুব সমাজ নেশা ছেড়ে খেলার মাঠে ধাবিত হবে। যব সমাজকে ধ্বংস করার যে হাতিয়ার এটা থেকে আমরা রক্ষা পাব।

#- আইয়ুব খান সরকার, নরসিংদী | মানবকণ্ঠ-

Be the first to comment on "নরসিংদীতে ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*