মাধবদীতে বাদীর ধাক্কায় আসামীর মায়ের মৃত্যু

সুমন পাল, নরসিংদী প্রতিদিন, ০৪ নভেম্বর ২০১৮:
নরসিংদীর মাধবদীতে বাদীর ধাক্কায় আসামীর মা রেহানা (৫৫) নামে এক বৃদ্ধার মৃত্যু ঘটেছে। গতকাল শনিবার ( ০৩ নভেম্বর) ভাের সাড়ে ৫ টায় মাদবদী থানার আলগী খােঁচপাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানাযায়, নিহত বৃদ্ধার পুত্র নাসির একেই গ্রামের কাসেম আলীর কন্যা কারিমা একটি টেক্সটাইল মিলে শ্রমিকের কাজ করতাে, কাজ করার সুবাদে দু’জনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নাসিরের পিতা মাতার অমতে নরসিংদী কোটে গিয়ে তারা বিয়ে করেন। বিয়ের কথা নাসিরের পিতা মাতা জানতে পারলে তাদেরকে গালাগালি করেন, এতে নাসির ক্ষােভে বাড়ী ছেড়ে চলে যায় এবং কারিমার সাথে যােগাযােগ বন্ধ করে দেয়।

কারিমার সাথে নাসির যােগাযােগ বন্ধ করার কারনে কারিমা নরসিংদী আদালতে নাসিরের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের মামলা দায়ের করে, বিজ্ঞ আদালত নাসিরের নাম গ্রেফতারী পরােয়ানা জারি করে। আসামী নাসির কে গ্রেফতার করতে মাধবদী থানার এএসআই সঞ্জয় কুমার ৩ নভেম্বর শনিবার গভীর রাত নাসিরের বাড়িতে যায়, নাসিরকে না পেয়ে নাসিরের মা,বােন ও ভগ্নীপতিকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করে। পুলিশ চলে যাওয়ার পর ঘর থেকে বের হয় বৃদ্ধা রেহানা নাসিরের চাচার ঘরে যাওয়ার সময় মামলার বাদী কারিমা ও তার ভাই সােহেল বৃদ্ধা রেহানাকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয়। রেহানার চিৎকার শুনে নাসিরের বােন ও চাচি বৃদ্ধাকে ঘরে তুলে নিয়ে যায়, এতে ঘটনাস্থলেই বৃদ্ধার মৃত্যু ঘটে।

এ ঘটনায় জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) জাকির হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কল) শাহরিয়ার আলম, মাধবদী থানার ওসি মােহাম্মদ আবু তাহের দেওয়ান, তদন্ত ওসি জহিরুল ইসলাম, নুরালাপুর ইউপি চেয়ারম্যান খাদমুল ইসলাম ফয়সাল ঘটনাস্থল পরির্দশন করেন।

মাধবদীর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু তাহের দেওয়ান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ ঘটনায় বৃদ্ধার স্বামী নুরুল আমীন বাদি হয়ে তিনজনকে আসামী করে মাধবদী থানায় মামলা দায়ের করে।

# এডমিন : লক্ষন বর্মন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *