| ২২শে মে, ২০১৯ ইং | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৬ই রমযান, ১৪৪০ হিজরী | বুধবার

রিয়ালের হারে যে রেকর্ডগুলো হলো

ক্রীড়া ডেস্ক | নরসিংদী প্রতিদিন-
বুধবার,৬ মার্চ ২০১৯:
রিয়ালের জন্য হার নিত্য দিনকার ঘটনা নয়। কখনো কখনো এক হারে ঝড় বয়ে গেছে এই ক্লাবে। বদল করা হয়েছে কোচ। অথচ সেই রিয়াল ঘরের মাঠে টানা চার ম্যাচ হারের সাক্ষী। চ্যাম্পিয়নস লিগে পুঁচকে আয়াক্স বার্নাব্যুতে এসে রিয়ালকে উড়িয়ে দিয়েছে। ক্লাবের জন্মদিনে রিয়াল পেয়েছে চ্যাম্পিয়নস লিগের রেকর্ড ব্যবধানে হার। ১৯০২ সালের এই দিনে আনুষ্ঠানিকভাবে রিয়াল মাদ্রিদের যাত্রা শুরু হয়। আয়াক্সের বিপক্ষে হারের দিনে ক্লাবের ১১৬তম জন্মদিন পূর্ণ হলো। ক্লাবের জন্মদিনে রিয়াল প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ একটা কেক কাটার ব্যবস্থা করবেন নাকি?

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে আয়াক্স ৪-১ গোলে রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়েছে। দুই লেগ মিলিয়ে ডি ইয়ংরা তুলে নিয়েছে ৫-৩ ব্যবধানের জয়। ঘরের মাঠে দ্বিতীয় লেগে রিয়ালের এই ৪-১ গোলের হার চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে রিয়ালের নকআউট পর্বে সবচেয়ে বড় হার।

চ্যাম্পিয়ন হয়ে ইউরোপের শীর্ষ প্রতিযোগিতায় খেলতে এসে শেষ ষোলোয় বিদায় নিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। এর আগে সর্বশেষ চেলসির কপাল এভাবে শেষ ষোলোর ম্যাচে এসে পুড়েছিল। তারা ২০১২ মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে খেলতে এসেছিল। কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে পারেনি। এছাড়া রিয়াল মাদ্রিদ এ নিয়ে ১৩ বছর পরে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে পারল না। শেষ হলো তাদের এক হাজার দিন চ্যাম্পিয়নস লিগের চ্যাম্পিয়ন থাকার রাজত্ব।

আয়াক্স প্রায় প্রতিবছর চ্যাম্পিয়নস লিগের আসরে অংশ নেয়। নেদারল্যান্ডসের অন্যতম সেরা ক্লাব তারা। কিন্তু রিয়াল-বার্সা, জুভ-পিএসজি, বায়ার্ন-অ্যাথলেটিকোর দাপটে বেশক্ষণ টিকতে পারে না। এ নিয়ে ২২ বছর পর তারা চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠল। তাও আবার রিয়ালের মতো দলকে হারিয়ে। এর আগে ১৯৯৬-৯৭ মৌসুমে তারা কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছিল। ডি ইয়ং-ডি লিটদের মতো তরুণ এক দল নিয়ে আবার তা করে দেখাল আয়াক্স।

রিয়াল মাদ্রিদের বয়স ১১৬ বছর পূর্ণ হয়েছে আগেই বলেছি। এই ১১৬ বছরের ইতিহাসে মাত্র তিনবার টানা চার ম্যাচে হার দেখল ব্লাঙ্কোসরা। আগের দুটি রেকর্ড অবশ্য খুব বেশি দিনের নয়। ১৯৯৫ সালে এবং ২০০৪ সালে টানা চার ম্যাচে হার দেখে রিয়াল মাদ্রিদ।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *