| ১৭ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং | ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই সফর, ১৪৪১ হিজরী | বৃহস্পতিবার

মাধবদীর খড়িয়ায় স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে গৃহবধুর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক | নরসিংদী প্রতিদিন-
শুক্রবার,০৫ এপ্রিল ২০১৯:
নরসিংদীর মাধবদীতে স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে চার সন্তানের জননী সুমী (২৮) এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার সকালে নিহত সুমীর স্বজনরা নরসিংদী প্রতিদিনকে এ খবর জানান। সুমী কাঠাঁলিয়া ইউনিয়নের খড়িয়া গ্রামের রবিউল ইসলামের স্ত্রী। রবিউল একই এলাকার মৃত: আমিন উদ্দিন এর ছেলে।

নিহত সুমীর অবুঝ তিন কন্যা শিশু…

স্থানীয়রা জানান, রবিউল ইসলামের সংসারে একটি ছেলে ও তিনটি কন্যা সন্তার রয়েছে, সে প্রায় সময় তার স্ত্রী সুমীকে মারধর করতো। গতরাতেও তাদের মাঝে ঝগড়া হয় বলে জানান তারা।
রাতেই স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে বিষ পান করে সুমী। এতে তাকে মুমূর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায় স্বজনরা। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুমীকে মৃত: বলে ঘোষনা করেন। এ খবরে স্বজনদের মাঝে আজহারি শুরু হয়। তারা স্বামীর বিচারের দাবী জানান। ঘটনার পর থেকে রবিউল পলাতক রয়েছে বলে জানান স্বজনরা।

নিহতর ভাই সোহেল ঢামেক থেকে মুঠোফোনে জানান, সুমী বিষ পান করেছে, পরে তার শ্বশুর বাড়ীর লোকেরা ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পথেই সে মারাযায়। ঢামেক থেকে পুলিশ ক্যাস ও ময়না তদন্ত শেষে সুমীর মরদেহ গ্রামের বাড়ীতে আনা হবে।

তবে স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল হাই মুঠোফোনে জানান, কি কারনে সুমী মারা গেছে, তা সঠিক বলেতে পারছেন না তিনি। এ বিষয়ে নিউজ না করার জন্যও তিনি বলেন।

মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবু তাহের দেওয়ান জানান, কাঠালিয়া ইউনিয়নে সুমী নামে গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে এমন কোন অভিযোগ থানায় আসে নাই। তবে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *