| ২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৩শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী | রবিবার

নরসিংদী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সেবায় সন্তুষ্ট সাধারণ মানুষ

নরসিংদীর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে নবনিযুক্ত সহকারী পরিচালক সাহজাহান কবির

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক | নরসিংদী প্রতিদিন-
মঙ্গলবার, ৭ মে ২০১৯: মাত্র কয়েক মাস আগেও নানা অনিয়মের কারনে যে নরসিংদীর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়েছে সাধারণ মানুষদের সেখানেই অফিসারদের আন্তরিক সেবায় এখন মুগ্ধ সাধারণ মানুষ। মাত্র তিন মাসেই জেলার অন্যতম অনিয়মের আঁখড়া হিসেবে পরিচিত পাসপোর্ট অফিসের চেহারা পাল্টে দিয়েছেন নবনিযুক্ত সহকারী পরিচালক সাহজাহান কবির। তার গৃহীত নানামূখী কার্যকর পদক্ষেপে এখানে কমেছে দালালের দৌরাত্ম্য অন্যদিকে বেড়েছে সেবা প্রত্যাশীদের সুবিধা।

নরসিংদীর এ কার্যালয়টিতে সহকারী পরিচালক হিসেবে সাহজাহান কবির যোগদানের পর সেবাপ্রত্যাশীদের সুবিধার্থে এখানে খোলা হয়েছে হেল্প ডেস্ক, অভিযোগ বক্স, জবাবদিহি বক্স, নাগরিক সেবাকেন্দ্র ও দালাল হয়রানি বন্ধে সতর্কবাণী। কর্মকর্তা, কর্মচারীদের দুর্নীতি রোধে এ অফিসে কর্মরত পিয়ন থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ পর্যায়ের কর্তা পর্যন্ত প্রত্যেকের পোশাকে নিজের নাম সংবলিত ব্যাজ লাগানো বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। বাচ্চাদের জন্য রাখা হয়েছে চিপস্, জুসসহ নানা পণ্যের ব্যবস্থা, প্রত্যেকটি প্রতিবন্ধী গ্রাহকদের জন্য রাখা হয়েছে বিশেষ সেবা ব্যবস্থা। এছাড়া গ্রাহকদের অভিযোগ বা সমস্যা নিয়ে প্রতি সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হয় গণশুনানী।

নরসিংদী প্রতিদিন এর প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে সহকারী পরিচালক সাহজাহান কবির জানান, “পাসপোর্ট নাগরিক অধিকার, নিঃস্বার্থ সেবাই আমাদের অঙ্গীকার” সরকারের এ শ্লোগানে হয়রানী বন্ধ করে জনগণের সেবা নিশ্চিত করতে চেষ্টা করছি। তাছাড়া জনবান্ধব সেবা প্রদানে কার্যালয়ের কর্মকর্তা কর্মচারীদের আন্তরিকতার বিকল্প নেই। আমরা তা-ই চেষ্টা করে যাচ্ছি। তিনি আরো জানান অফিস চত্বরকে মনোমুগ্ধকর করে তুলতে ফুলের বাগানসহ পরিবেশের সৌন্দর্য্য বাড়ানো হয়েছে। সার্বিকভাবে আগের তুলনায় গ্রাহকসেবা বেড়েছে এখানে। প্রতিদিন গড়ে ২ শত ৫০ থেকে ৩ শত পাসপোর্টের আবেদন জমা পড়ছে নরসিংদী আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ে। এতে সন্তুষ্টি ও আস্থা ফিরে এসেছে গ্রাহকদের মধ্যে।

প্রসঙ্গত, নাগরিকদের সহজে পাসপোর্ট সেবা দিতে ২০১০ সালে যাত্রা শুরু হয় নরসিংদীর আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ের। বিগত সময়গুলোতে বিদেশ গমন, হজ্ব পালন, বিদেশ ভ্রমনে পাসপোর্ট সেবা নিতে এসে প্রতিনিয়ত এখানে দালালদের দৌরাত্ম্য, অতিরিক্ত অর্থ ব্যয়সহ নানা হয়রানির শিকার হতেন গ্রাহকরা। এতে সেবা বঞ্চিত হওয়াসহ আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হতো গ্রাহকদের। দীর্ঘদিন পর হলেও বর্তমানে অনেকটা পাল্টে গেছে আঞ্চলিক এই পাসপোর্ট কার্যালয়ের চিত্র। তবে হয়রানী বন্ধ ও সেবার মান সবসময় ধরে রাখার দাবী জানিয়েছেন সাধারণ গ্রাহকরা।
-নরসিংদী প্রতিদিন/আল-আমিন-সরকার

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *