| ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং | ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৯শে মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী | বৃহস্পতিবার

নরসিংদীতে ছাত্রীর গায়ে আগুন দেয়ার ঘটনার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

লক্ষন বর্মন। নরসিংদী প্রতিদিন-
সোমবার ১৭ জুন ২০১৯:
নরসিংদীতে কলেজ ছাত্রী ফুলন রানী বর্মণ (২২) এর গায়ে দুর্বৃত্তদের আগুন দেয়ার ঘটনার প্রতিবাদে ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। আজ সোমবার দুপুরে শহরের উপজেলা মোড়ে প্রেসকাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে এলাকাবাসীর পাশাপাশি বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থী ও স্বজনরা অংশ নেয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, বীরপুর বাউল ঠাকুর আখড়ার সভাপতি জিতেন্দ্র বর্মন, বীরপুর কমিউনিটি পুলিশ কমিটির সভাপতি আলমগীর হোসেন আলম,পৌর ২নং ওয়ার্ডের সাংগঠনিক সসম্পাদক সোহরাব হোসেন, নরসিংদী উদয়ন কলেজের অধ্যক্ষ মুকুল চন্দ্র দাস, বীরপুর প্রভাতি যুব সংঘের আহবায়ক কানাই বর্মন, নরসিংদী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক রাজন বর্মন, মোমেন শিকদার, রানা ভূইয়া, উদয়ন কলেজের ছাত্র-ছাত্রীসহ বীরপুরের এলাকাবাসি।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা বলেন, এ ঘটনার ৫ দিন অতিবাহিত হলেও প্রকৃত কারণ উদঘাটন ও জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। আগুনের ঘটনায় জড়িত দুর্বৃত্তদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন তারা।
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) রাতে নরসিংদী শহরের বীরপুর মহল্লার বর্মণপাড়ায় নিজ বাড়ির পাশে ফুলনের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। এতে তাঁর শরীরের ১২ শতাংশ পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। গুরুতর অবস্থায় তাকে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। ফুলন রানী বর্মণ নরসিংদী পৌরসভার বীরপুর মহল্লার বর্মণপাড়ার যোগেন্দ্র চন্দ্র বর্মণের মেয়ে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ পরিদর্শক আব্দুল গাফফার জানান, এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে সঞ্জিব রায়, ইব্রাহিম ও সোহাগ সূত্রধর নামের তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।
আগুনে দগ্ধ হওয়ার ঘটনার পর থেকে ঘটনার তদন্তে মাঠে নামে থানা পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক দল। ঘটনাস্থল থেকে কেরোসিনের বোতল, দিয়াশলাইয়ের বক্স, ওড়না, পোড়া চুলসহ বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে তদন্ত করছে পুলিশ। এ ঘটনায় গত শুক্রবার বিকেলে ফুলনের বাবা যোগেন্দ্র চন্দ্র বর্মণ বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে নরসিংদী সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *