1. nahidprodhan143@gmail.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  2. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  3. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  4. narsingdipratidin.mail@gmail.com : narsingdi :
  5. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  6. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
  7. subeditor@narsingdipratidin.com : Narsingdi Pratidin : Narsingdi Pratidin
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০২:৩৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নরসিংদী বিজনেস গ্রুপে উদ্যোক্তাদের মিলনমেলা অনুষ্ঠিত জাহানারা বেগম উচ্চ বিদ্যালয় ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন নরসিংদীতে রেলের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু মুজিববর্ষে পিরোজপুর সদর উপজেলা ভূমি অফিসের উদ্যোগে  রোপণ পিরোজপুরে ভূমি অফিস পরিদর্শনে ডিএলআরসি : এলডি ট্যাক্স সফটওয়ারের পাইলটিং কার্যক্রম বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেয়ার নির্দেশ  আমদিয়া ইউনিয়ন সবুজ বাংলা একতা সংঘের আয়োজনে মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত নরসিংদীতে অধ্যক্ষ নুর হোসেন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ বেলাবতে আড়িয়াল খা নদী থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার রাজনীতিকে সৃজনশীল করা দরকার: মৎস্যমন্ত্রী বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিলেই আ.লীগে অস্থিরতা শুরু: প্রিন্স

মাধবদীতে দুই যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক | নরসিংদী প্রতিদিন-
সোমবার,১৫ জুলাই ২০১৯:
নরসিংদীর মাধবদীতে ছেলেধরা সন্দেহে পৃথক স্থানে দুই যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। গত শনিবার রাতে মাধবদীর কাঁঠালিয়া ইউনিয়নের খড়িয়া বাজারে ও রবিবার দুপুরে মাধবদী পৌরসভার টাটাপাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

গণপিটুনির শিকার ব্যক্তিরা হলো নরসিংদীর পূর্ব ভেলানগর এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মাসুম (৩২) ও রাজবাড়ী জেলার দাচিনুন ইউনিয়নের সিংড়া গ্রামের নিজাম উদ্দিনের ছেলে নজরুল ইসলাম (৩০)। তবে আটককৃতদের দুজনই পরিস্থিতির শিকার এবং তারা নির্দোষ বলে দাবী করেন তাদের নিকটাত্মীয় ও প্রতিবেশীরা।

পুলিশ নরসিংদী প্রতিদিনকে জানায়, শনিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে মাধবদীর কাঠালিয়া ইউনিয়নের খড়িয়া বাজারে ছেলেধরা সন্দেহে এক ব্যক্তিকে গণপিটুনি দেয়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। পরদিন রবিবার দুপুরে খবর পেয়ে তার মামী মীনা বেগম এসে মাসুমের পরিচয় নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, মাসুম পেশায় একজন অটো চালক। ছোট বেলায় মা মারা যাওয়ায় তখন থেকে তিনিই তাকে লালন পালন করে বড় করেছেন। শনিবার বিকাল ৪টার পর থেকে তার মোবাইল বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিলো। পরে লোক মারফত খবর পেয়ে তিনি থানায় আসেন। মাসুমকে নির্দোষ দাবী করে তিনি বলেন ঘটনার পর থেকে তার অটোরিক্সাটি পাওয়া যাচ্ছেনা। রিক্সাটি হাতিয়ে নিতেই একটি চক্র “ছেলেধরা” নাটক সাজিয়ে তাকে গণপিটুনিতে ফেলেছে বলে উনার ধারণা। এদিকে গণপিটুনির শিকার মাসুম জানায়, শনিবার বিকেলে সে নরসিংদী থেকে যাত্রী নিয়ে খড়িয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। মাধবদী ফায়ার সার্ভিসের কাছে এসে যাত্রিরা জুস ও কিছু খাবার কিনে। এরপর সে আর কিছু জানেনা।

অন্যদিকে, রবিবার দুপুরে মাধবদী পৌরসভার টাটাপাড়া মহল্লায় ভাড়াটিয়া দিন মুনজুরের শিশু কন্যা রিমা(৭)কে বিস্কুট কিনে দেয়ায় ছেলে ধরা সন্দেহে নজরুল ইসলাম নামে আরেকজনকে স্থানীয় জনতা আটক করে গণপিটুনী দিয়ে মাধবদী পৌরসভায় নিয়ে আসে। সেখানে তার সাথে কথা বলে জানা যায়, সে টাটাপাড়া মহল্লার সুরু মিয়া নামক জনৈক ব্যক্তির বাড়িতে দীর্ঘদিন যাবৎ ভাড়া থেকে নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করছে। ঘটনার দিন সে দোকানে বসে চা- বিস্কুট খাওয়ার সময় এক শিশুকে বিস্কুট কিনে দেয়। এতে সেখানে উপস্থিত লোকজন তাকে ছেলেধরা সন্দেহে আটক করে মারধর করে। পরে তাকে মাধবদী পৌরসভায় নিয়ে আসলে খবর পেয়ে সেখান থেকে পুলিশ তাকে আটক করে।

স্থানীয় সচেতন ব্যক্তিদের অভিমত ছেলেধরা আটকের ঘটনা দুটি নিছকই গুজব। প্রকৃতপক্ষে দুজনই শ্রমজীবী মানুষ এবং তারা ভিন্ন পরিস্থিতির শিকার। তারা বলেন সন্দেহজনকভাবে এমন গণপিটুনি চলতে থাকলে অনেক নিরীহ মানুষ এ ঘটনার শিকার হয়ে প্রাণ হারাবে।

মাধবদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু তাহের দেওয়ান নরসিংদী প্রতিদিনকে জানান,দুই যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা। তাদের পরিবার থানায় এসে সনাক্ত করেছে। এদের গণপিটুনি দেয়ার কারন খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন

প্রয়োজনে ফোন করুন- ০১৭১৩৮২৫৮১৩

শাহিন আইটির একটি অঙ্গ-প্রতিষ্ঠান