বৃহস্পতিবার | ৬ই আগস্ট, ২০২০ ইং |

জীবনকে সর্বাঙ্গীণ সুন্দর করবে একটি হাদিস

ধর্মচিন্তা ডেস্ক | নরসিংদী প্রতিদিন-
বৃহস্পতিবার,০৯ জুলাই ২০২০:
শুধু একটি হাদিস যদি আমরা আমাদের জীবনে বাস্তবায়ন করতে পারি, তবে আমাদের জীবন সর্বাঙ্গীণ সুন্দর ও চমৎকার হয়ে উঠবে। হাদিসটি যদি আমরা মেনে চলতে পারি, জীবনের কোনো দুশ্চিন্তাই আমাদের ওপর প্রভাব ফেলবে না। হাদিসটি হলো-হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আমর (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসূল (সা.) বলেছেন, ‘যদি তোমরা চারটি গুণ অর্জন করতে পারো, তবে দুনিয়ার হারানো বস্তু নিয়ে তোমাদের দুশ্চিন্তা করার কোনো কারণ নেই: আস্থা, সত্য কথা, উত্তম চরিত্র এবং খাবারে সংযম।’ (মুসনাদে আহমদ)। এ হাদিসে চারটি গুণ অর্জনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যথা:

১. আস্থা অটুট রাখা : রাসূল (সা.) আমাদের আদেশ দিয়েছেন, আমাদের ওপর মানুষের আস্থাকে বজায় রাখতে। অর্থাৎ, অন্য মানুষ যাতে কোনো কাজে আমাদের ওপর আস্থা, ভরসা এবং বিশ্বাস রাখতে পারে। এ জন্য এমন কোনো কাজ করা যাবে না, যাতে করে মানুষের এ আস্থা ভেঙে যায়। নিজের সামান্য লাভের জন্য কারো সাথে প্রতারণা করা, কাউকে ঠকানো আমাদের উচিত হবে না।

২. সত্য কথা : রাসূল (সা.) এর অপর এক হাদিসে বলা হয়েছে, একজন মুসলিম যে কোনো গুনাহ করলেও সে কখনো মিথ্যা বলতে পারে না এবং কখনই প্রতারণা করতে পারে না। সুতরাং, আল্লাহর বান্দা হিসেবে আমাদের কখনই উচিত নয় মিথ্যা বলা।

৩. উত্তম চরিত্র : একজন উত্তম মুসলিম এবং আল্লাহর উত্তম একজন বান্দার মৌলিক বৈশিষ্ট্য হলো তার উত্তম চরিত্র। লুকমান (আ.) বলেছেন, ‘আমি কখনই নীরবতার জন্য অনুশোচিত হইনি বরং আমি যা বলেছি তার জন্য অনুশোচনা করেছি।’ সুতরাং, আমাদের সবার কথায় ও কাজে চরিত্রকে সমন্বয় ও সুন্দর করে নেওয়া প্রয়োজন।

৪. খাবারে সংযম : খাবারে সংযম ও পবিত্রতা অবলম্বন মানুষের জীবনকে সুন্দর করে। এর মাধ্যমে আমাদের জীবন বরকতে পূর্ণ হতে পারে। অতিরিক্ত আহার ও খাবারে অসংযমে আমাদের শরীর বিভিন্ন রোগাক্রান্ত হতে পারে। পাশাপাশি এর জন্য যদি অসৎ উপায়ে উপার্জন করতে হয়, তবে তা আমাদের চরিত্রের জন্যই অসম্মানের। রাসূল (সা.) এর এক হাদিসে এসেছে, যে ব্যক্তি নিজের পরিবারের জন্য হালাল উপায়ে উপার্জন করে এবং এ জন্য তার হাতে ফোসকা পড়ে যায়, তবে তার জন্য জাহান্নামের আগুন নিষিদ্ধ হয়ে যাবে।

follow and like us:
0