বৃহস্পতিবার | ৬ই আগস্ট, ২০২০ ইং |

নিউজ ডেস্ক | নরসিংদী প্রতিদিন-
শনিবার, ১ আগস্ট ২০২০:
চট্টগ্রামের নগরীর আতুরার ডিপো এলাকায় চামড়ার আড়তগুলোতে শুরু হয়েছে কোরবানির পশুর চামড়া সংগ্রহ। এবার এলাকা ভেদে ৭০ হাজার থেকে লাখ টাকার ওপরে কেনা গরুর চামড়া বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৫০০ টাকায়। ৪০ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকার গরুর চামড়া বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ৩০০ টাকায়। এদিকে ছাগলের চামড়া বিক্রি হচ্ছে ১০ থেকে ১৫ টাকায়। শনিবার (১ আগস্ট) দুপুর থেকে আসা চামড়াগুলো পরিষ্কার করা ও লবণ দেওয়া শুরু করে শ্রমিকরা।

বৃহত্তর চট্টগ্রাম কাঁচা চামড়া আড়তদার সমবায় সমিতির সভাপতি আবদুল কাদের বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের নির্ধারিত দামেই আমরা চামড়া কিনছি। লবণ ছাড়া কাঁচা চামড়া প্রতিটি লবণের খরচ বাবদ ৫-৬ টাকা কম দেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, সমিতির ১১২ জন সদস্য ছাড়াও আরও ১৫০ জন ব্যবসায়ী কোরবানির চামড়া কেনার সঙ্গে জড়িত। চার লাখের বেশি কোরবানির পশুর চামড়া কেনার লক্ষ্য রয়েছে। তবে যেহেতু এখন গরম পড়ছে, তাই দ্রুত চামড়া ধুয়ে লবণ দিলে নষ্ট হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করা যাবে।

জানা যায়, এ বছর চট্টগ্রামে গরুর লবণযুক্ত কাঁচা চামড়ার দাম ২৮ থেকে ৩২ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। খাসির লবণযুক্ত চামড়ার দাম ধরা হয়েছে ১৩ থেকে ১৫ টাকা ও বকরির চামড়া ১০ থেকে ১২ টাকা। গত বছর এ দাম ছিল যথাক্রমে ৪৫ থেকে ৫০ টাকা ও ৩৫ থেকে ৪০ টাকা।

বন্দর এলাকার বাসিন্দা জিকু রহমান বলেন, গরুর দামের উপর নির্ভর করছে চামড়ার দাম। ১ লাখ টাকা দামের গরুর চামড়া ৩০০ টাকার বেশি দিচ্ছে না মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা। তিনি ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা দামের গরুর চামড়া বিক্রি করেছি ৩২০ টাকায়।

জানা গেছে, এ বছর চামড়ার দাম নির্ধারণের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক বাজারে চামড়ার মূল্য, বাংলাদেশি চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যের চাহিদা, করোনা পরিস্থিতিতে সেই চাহিদা সঙ্কোচনের পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা, দেশের চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যের গুণগত মান, বর্তমানে চামড়া মজুদের মতো নানান বিষয় বিবেচনায় রাখা হয়েছে।

ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা জানান, এবার সবচেয়ে কম দামে চামড়া কেনাবেচা হচ্ছে। ট্যানারি-মালিকদের নির্ধারণ করে দেওয়া দামও মিলছে না চামড়ার। কম দরে চামড়া বিক্রি হওয়ায় দরিদ্র প্রতিবেশী, এতিমখানা, মাদ্রাসা প্রাপ্য অর্থ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এত কম দর হওয়ার কারণ হিসেবে আড়তদার ও ব্যবসায়ীদের দায়ী করছেন বিক্রেতারা। এদিকে কম দরে বেচাকেনা হওয়ায় চামড়া পাচারের আশঙ্কা করছেন অনেকেই।

এদিকে, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর চামড়া সংগ্রহ ও সংরক্ষণের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছে। কোরবানির পশুর চামড়া সংক্রান্ত কোনও অভিযোগ থাকলে তা অধিদফতরের হটলাইন নম্বরে (১৬১২১) জানাতে পারবেন সংশ্লিষ্টরা।

follow and like us:
0