1. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  2. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  3. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  4. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  5. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০২:২৫ অপরাহ্ন

নরসিংদীর চরাঞ্চল বাঁশগাড়িতে পুলিশ-গ্রামবাসী সংঘর্ষ ৩ পুলিশ সহ আহত ১৫,আটক ১০ এক পুলিশ সদস্যকে অপহরনের অভিযোগ

ডেস্ক রিপোর্ট | নরসিংদী প্রতিদিন
  • প্রকাশের তারিখ | শুক্রবার, ২৬ মে, ২০১৭

লক্ষন বর্মন, নরসিংদী: নরসিংদীর দূর্গম চরাঞ্চল বাঁশগাড়ীতে পুলিশ ও গ্রামবাসী মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৩ পুলিশ সদস্য সহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। এসময় উত্তেজিত গ্রামবাসী ৩ পুলিশ সদস্যকে আটক করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় পুলিশ ১০ গ্রামবাসীকে আটক করেছে বলে জানিয়েছে। তবে এদের মধ্যে গ্রামবাসী এক পুলিশ সদস্য অপহরন করে নিয়ে গেছে বলে দাবী করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) হাসিবুল আলম।
শুক্রবার রাতে রায়পুরা থানা পুলিশ ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী ধরতে গেলে আওয়ামীলীগ নেতা শাহেদ সরকার সমর্থিত গ্রামবাসীর সাথে পুলিশের সংঘর্ষ বাঁধে। এই ঘটনার পর থেকে এলাকাটিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে নদী ও সড়কপথে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
নিবাচনী সহিংসতা ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নরসিংদীর চরাঞ্চল বাঁশগাড়ীতে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান সাহেদ সরকার ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সিরাজুল হকের সমর্থকদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে চলতি ৮ই মে দুই পক্ষের রক্তক্ষয়ী টেঁটা ও বন্ধুকযুদ্ধে ২ জন নিহত হয়। এছাড়া গত কয়েক মাস ব্যাপী সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ৭ জন নিহত হয়। আহত হয় কমপক্ষে দুই শতাধিক গ্রামবাসী। নিহত ৫ জন সাবেক চেয়ারম্যান সাহেদ সরকারের সমর্থক। অপর দুই জন বর্তমান চেয়ারম্যান সিরাজুল হকের সমর্থক। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ এক অপরের বিরুদ্ধে পাল্টা-পাল্ট মামলা দায়ের করেন।
এরই জের ধরে আজ শুক্রবার রায়পুরা থানা পুলিশ ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী ধরতে বাশগাড়ী এলাকায় অভিযান চালায়। ওই সময় পুলিশ সাহেদ সমর্থক রুপু মেম্বার ও আজিম মিয়া সহ ৪ জনকে আটক করে। এতে উত্তেজিত হয়ে যায় গ্রামবাসী। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ গ্রামবাসীর উপর লাঠি চার্জ করেন। পরে উত্তেজিত জনতা সংঘবদ্ধ হয়ে পুলিশের উপর হামলা চালায়। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। এতে তিন পুলিশ সদস্য সহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়। এদিকে রুপু মেম্বার ও আজিম মিয়া সহ ৪ জনকে আটকের প্রতিবাদে গ্রামবাসী ৩ পুলিশ সদস্য আটক করে নিয়ে যায়। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুই পুলিশ সদস্যকে উদ্ধার করে। এরিপোর্ট লেখা পযর্ন্ত অপর এক পুলিশ সদস্যকে উদ্ধারে অভিযান চালানো হচ্ছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসতে অতিরিক্ত পুলিশের পাশাপাশি এলাকায় দাঙ্গা পুলিশ মোতায়ের করা হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সময় বাঁশগাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন বাশগাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান সাহেদ সরকার। কিন্তু নির্বাচনে স্থানীয় সংসদ সদস্য রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজুর পছন্দের প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সিরাজুল হক চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়। এরপর থেকে দুই পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) হাসিবুল আলম বলেন, আধিপত্ব বিস্তারের জের ধরেই বার বার এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। আজকে আসামী ধরতে গেলে গ্রামবাসী পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে এক পুলিশ সদস্যকে অপহরন করে নিয়ে য়ায়। তাকে উদ্ধারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ডিএসপি সফিউর রহমানের নেতৃত্ত্বে পুলিশের বিশষ টিম অভিযান পরিচালানা করছে



এই পাতার আরও সংবাদ:-





DMCA.com Protection Status
টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-নরসিংদী প্রতিদিন-
Theme Customized BY WooHostBD