1. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  2. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  3. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  4. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  5. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১১:৫১ পূর্বাহ্ন

থিসারার ঝড় ছাপিয়ে জয় চিটাগংয়ের

ডেস্ক রিপোর্ট | নরসিংদী প্রতিদিন
  • প্রকাশের তারিখ | সোমবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০১৯

ক্রীড়া ডেস্ক | নরসিংদী প্রতিদিন-
সোমবার, ১৪ জানুয়ারি ২০১৯:

থিসারা পেরেরার ঝড়ের পরও ম্যাচ জিতেছে মুশফিকুর রহীমের চিটাগং ভাইকিংস। গতকাল মিরপুর শেরেবাংলায় অনুষ্ঠিত বিপিএলের ম্যাচে চিটাগংকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে। চিটাগংয়ের অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম খেলেছেন ৪১ বলে ৭৫ রানের এক ইনিংস। যার মধ্যে ছিল ৭টি চার ও ৪টি ছয়ের মার।

১৮৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে চিটাগংকে দারুণ সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার মোহাম্মদ শাহজাদ ও ক্যামেরন ডেলপোর্ট। এই দুজনে মিলে ৫.২ ওভারে দলের সংগ্রহকে নিয়ে যান ৫৮ রানে। ডেলপোর্ট ১৩ রান করে সাইফুদ্দিনের বলে তামিমকে ক্যাচ দিয়ে ফিরে আসেন। ওয়ানডাউনে খেলতে নেমে সুবিধা করতে পারেনি ইয়াশির আলি। মাত্র ৪ রান করে থিসারা পেরেরার বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন তিনি। ৭০ রানের মাথায় ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা শাহজাদকে আউট করে ম্যাচে দলকে ফেরান কুমিল্লার শহীদ আফ্রিদি। শাহজাদ ২৭ বলে ৪৬ করেন। তার ইনিংসে ছিল ৬টি চার ও দুটি ছয়ের মার।

অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম আফগান নজিবুল্লাহ জাদরানকে নিয়ে ভালোভাবেই এগোচ্ছিলেন। কিন্তু ১১৭ রানে ১৩ রান করা জাদরানকে আউট করেন মেহেদী হাসান। এরপর অধিনায়ক মুশফিক একাই লড়াই চালিয়ে যান। জয়ের থেকে মাত্র ৭ রান দূরে থাকতে সাইফুদ্দিনের বলে তামিমের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে আসেন মুশফিক ৭৫ রান করে। শেষ ওভারের চতুর্থ বলে লিয়াম ডসনকে ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন রবি ফ্রাইলিঙ্ক।

কন্ডিশন নতুন, কিন্তু সেই পুরনো থিসারা পেরেরা। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে শেষ দুই ওয়ানডে ও একমাত্র টি-২০-তে ব্যাটিং তা-ব চালানোর পর শ্রীলঙ্কার এ অলরাউন্ডার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের জার্সিতেও আগুন ঝরালেন। অথচ পরশু নিউজিল্যান্ড সফর শেষ করে বিপিএল খেলতে গতকাল রোববার সকালে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন তিনি!

চিটাগং ভাইকিংসে নায়কের খ্যাতি কুড়ানো রবি ফ্রাইলিঙ্কের ওপর সবচেয়ে বেশি চড়াও হন থিসারা। সবশেষে মাত্র ২৬ বলে ৩ চার ও ৮ ছয়ে ৭৪ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। তার অনবদ্য ব্যাটিংয়ে ৫ উইকেটে ১৮৪ রান করে কুমিল্লা।

টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে চিটাগং দ্বিতীয় বলে তামিম ইকবালকে শূন্য রানে ফিরিয়ে দারুণ শুরু করে। ফ্রাইলিঙ্ক ফেরান বাঁহাতি ওপেনারকে। এনামুল হক বিজয় বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ১০ রানে আবু জায়েদ রাহির বলে ফ্রাইলিঙ্কের দারুণ ক্যাচে বিদায় নেন তিনি।

তারপর এভিন লুইস ও ইমরুল কায়েসের ৫৪ রানের জুটিতে পথে ফেরে কুমিল্লা। কিন্তু ১২তম ওভারে খালেদ আহমেদের জোড়া আঘাতে বিপদ শুরু তাদের। কুমিল্লার অধিনায়ক ইমরুল ২৪ রানে ফেরার পর লুইস রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন। চার বল পর লিয়াম ডউসন বিদায় নেন ২ রান করে। খালেদ তার পরের ওভারে শহীদ আফ্রিদিকে (২) হিট উইকেটে মাঠছাড়া করেন।

৮৬ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ভুগতে থাকে কুমিল্লা। কিন্তু মাঠে নেমেই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন থিসারা, সানজামুল ইসলামের দ্বিতীয় ওভারে ৩টি ছক্কায় যার শুরু। ১৯তম ওভারে টানা দুটি ছয় মেরে ২০ বলে ফিফটি করেন লঙ্কান ব্যাটসম্যান। ফ্রাইলিঙ্কের ওই ওভারে আরও দুটি ছয় ও চার হাঁকান, রান আসে ৩০টি। বিপিএল ইতিহাসে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যয়বহুল ওভার। শেষ ওভারে আরও একটি চার ছিল তার। অন্য প্রান্তে ১৯ বলে ২ চার ও ১ ছয়ে ২৬ রানে অপরাজিত ছিলেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। চিটাগংয়ের পক্ষে খালেদ সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন ৩৪ রান দিয়ে।



এই পাতার আরও সংবাদ:-





DMCA.com Protection Status
টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-নরসিংদী প্রতিদিন-
Theme Customized BY WooHostBD