1. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  2. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  3. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  4. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  5. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৫:৩২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০

‘ব্র্যান্ডেরই নকল ওষুধ সরবরাহ হতো অখ্যাত ফার্মেসিগুলোতে’

ডেস্ক রিপোর্ট | নরসিংদী প্রতিদিন
  • প্রকাশের তারিখ | রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ৫২৮ পাঠক

নিউজ ডেস্ক । নরসিংদী প্রতিদিন-
রবিবার,০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯:
দীর্ঘদিন একাধিক নামি-দামি কোম্পানির ওষুধের নাম ও মোড়ক নকল করে নিজস্ব পদ্ধতিতে বানিয়ে বাজারজাত করছিল একটি চক্র। বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির নকল ওষুধ ও নকল ওষুধ তৈরির সরঞ্জামসহ সেই চক্রের ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে ডিএমপি। গ্রেপ্তারকৃতরা ইনসুলিন ও পেথিডিনের মতো সংবেদনশীল ওষুধের হুবহু নকল মোড়ক ও বোতল তৈরি করে ভেতরে ভেজাল ওষুধ দিয়ে বাজারজাত করতেন। গ্রেপ্তারকৃত ৫ জন হলেন- আব্দুস সোবাহান, নাইমুর রহমান ওরফে তুষার, রিয়াজুল ইসলাম ওরফে মৃদুল, নারগিছ বেগম ও ওয়াহিদ।

শনিবার রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে এই নকল ওষুধ চক্রের ৫ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগের একটি দল।

গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে প্রিন্টার মেশিন, রঙের কৌটা; তৈরির ও মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ, মূল্য, ব্যাচ নং ইত্যাদি লেখাসহ বিভিন্ন প্রকার সিল, ৫ মিলি. পানির বোতল ৩০০ পিস, সেক্স পাওয়ার ক্যাপসুল ৮৫ হাজার পিস, অ্যাক্ট্রাপিড ১০ মিলি. ৬৫ পিস ইনসুলিন, মিক্সটার্ড ৩০ মিলি. ৫ পিস ইনসুলিন, জি পেথিডিন ইনজেকশনের খালি কাঁচের বোতল ১৬২৫টি, একটি এয়ার হটগান, জি পেথিডিন ইনজেকশনের প্লাস্টিকের ট্রে (ছোট) ১ বস্তা, গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালস লি. লেখা জি পেথিডিন ইনজেকশনের ফুয়েল পেপার (স্টিকার) ১ রোল, প্রিমিয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লি. এর অ্যালাট লেখা ওষুধের ফুয়েল পেপার ইত্যাদি জব্দ করা হয়েছে।

রোববার (৩ ফেব্রুয়ারি) ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ডিবি) মো. আবদুল বাতেন এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, চক্রটি ভেজাল ওষুধ তৈরি করে বিভিন্ন নামিদামি ওষুধ কোম্পানির মোড়ক ব্যবহার করে প্রতারণা করে আসছিল। ওষুধের মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে তারা সিল মেরে মেয়াদ বর্ধিত করতো! গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদের ৫ জনকে বিপুল পরিমাণ নকল ওষুধ ও ওষুধ তৈরির সরঞ্জামসহ গ্রেপ্তার করা হয়। তারা শিশুদের দিয়ে কৌশলে এসব বহন করাতো।

ডিবির এই শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, নকল ও ভেজাল ওষুধ থেকে বাঁচতে ওষুধ কেনার আগে ভালো মানের ফার্মেসি থেকে ক্রয় করা উচিৎ। এ চক্রটি সাধারণত নরমাল ও অখ্যাত ফার্মেসিগুলোতে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ওষুধ সরবরাহ করে থাকে। এরা সাধারণত নিম্ন আয়ের মানুষের বসবাসস্থল টার্গেট করে ভেজাল ওষুধ সরবরাহ করে। তাদের কাছেই উত্তেজক ওষুধসহ বিভিন্ন নকল ওষুধ সরবরাহ করতেন।

তিনি বলেন, পুরো চক্রটিকে আইনের আওতায় আনতে আমাদের অভিযান চলবে। কারা, কোন প্রক্রিয়ায় এসব নকল ওষুধ বানাচ্ছে এবং কিভাবে ফার্মেসিগুলোকে তা বিক্রির জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে, তা জানাই এখন আমাদের মূল টার্গেট। আশা করি, আমরা খুব দ্রুত এই চক্রকে ধরতে পারব।’

আব্দুল বাতেন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি সোহাবান দীর্ঘ দিন একাধিক কোম্পানির ওষুধ নিজস্ব প্রযুক্তি ব্যবহার করে নকল ওষুধ, লেভেল ইত্যাদি তৈরির কথা স্বীকার করেছে। এছাড়া মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ বিভিন্নভাবে সংগ্রহ করে দেশীয় পদ্ধতিতে ওষুধের গায়ে মেয়াদ, ব্যাচ নং, মূল্য ইত্যাদি নতুনভাবে সংযোজন করে পুনরায় তা বাজারজাত করে আসছে।

আসামিদের বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।



সংবাদটি শেয়ার করিুন

এই পাতার আরও সংবাদ:-



বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০



DMCA.com Protection Status
টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-নরসিংদী প্রতিদিন-
Theme Customized BY WooHostBD