1. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  2. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  3. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  4. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  5. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন

পলাশে আমন ধানে পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণ, দিশেহারা কৃষক

ডেস্ক রিপোর্ট | নরসিংদী প্রতিদিন
  • প্রকাশের তারিখ | বুধবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক | নরসিংদী প্রতিদিন –
বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ :
নরসিংদীর পলাশে আমন ধানে পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণে মরে যাচ্ছে ধানগাছ। কীটনাশক প্রয়োগ করেও সুফল না পাওয়ায় দিশেহারা কৃষকদের মাথায় হাত পড়েছে। কিছুদিনের মধ্যে এসব ধান ঘরে তোলার কথা থাকলেও, পোকায় ধরায় এখন এই ফসল থেকে দেনা শোধ করতে পারবেন কিনা সেই চিন্তায় দিশেহারা কৃষকরা।

পলাশ উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে পলাশ উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ৩ হাজার ৬শ’ হেক্টর জমিতে আমন ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে কৃষি বিভাগ। এরমধ্যে আবাদ হয়েছে ৩ হাজার ৫ শ’ ৯০ হেক্টর জমিতে। এসব জমিতে এখন আসতে শুরু করেছে ধানের ছড়া। আগামী এক দেড় মাসের মধ্যে এসব ধান ঘরে তোলার কথা কৃষকের। চলতি মৌসুমে উপজেলায় ১৩ হাজার ৪ শত ৭০ মেট্রিক টন আমন ধানের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

​এ মৌসুমে ধানের বাম্পার ফলন হবে কৃষকরা এমন স্বপ্নে আশাবাদী হলেও এসব ধানের জমিতে পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছেন কৃষকরা। গত এক মাস ধরে উপজেলার চলনা, মালিতা, সুলতানপুর, গকুলনগর, চরসিন্দুরসহ বিভিন্ন গ্রামে ধানের জমিগুলোতে বাড়ছে এই পোকার আক্রমণ। এতে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি নিয়ে উদ্বিগ্ন কৃষকরা।

গকুল নগর এলাকার কৃষক কামাল ভূইয়া জানান, তিন বিঘা জমি ধান করছি বর্গা নিয়া, পোকার আক্রমণে তিন বিঘা জমিই নষ্ট হয়ে গেছে। অনেক টাকা খরচ করেছি, আমি নিজেই কি নিব, জমির মালিককেই বা কি দিব। কৃষি অফিসারকে জিজ্ঞেস করছি, কৃষি অফিসার বলছেন ঔষধ দেয়ার জন্য, ঔষধ দিছি, দেয়ার পরও কোন কাজ হয়নি। এখন আমি লসের পথে।

একই এলাকার চাষী মোফাজ্জল হোসেন জানান, এবারে যে সমস্যা, পোকায় যে আক্রমণ করতাসে, ২০ শতাংশ জমি থেকে ২ মণ ধানও পাওয়া সম্ভব হবেনা। শুধু খালি আমার না, আমার এলাকার যারা ক্ষেত করসে সবার ক্ষেতই একই অবস্থা। কৃষি অফিসারের সাথে পরামর্শ করলাম, তিনি বলছেন স্প্রে করার জন্য, করছি বেশি একটা কাজ করলোনা।

তার সাথে সুর মিলিয়ে আশপাশের কৃষকরাও জানান, পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণের এক সপ্তাহের মধ্যে মরে যাচ্ছে ধান গাছ। কৃষি অফিসের পরামর্শ অনুযায়ী কীটনাশক প্রয়োগ করেও সুফল পাওয়া যাচ্ছে না।
ওই এলাকার মাঠকর্মী শাহনেওয়াজ জানান, আমাদের কিছু কিছু জমিতে পাতা মোড়ানো রোগ আছে, যা খুবই সামান্য। পাতা মোড়ানো রোগটার জন্য অনুমোদিত বালাইনাশক দেয়ার জন্য পরামর্শ দিচ্ছি। পোকাটা পাতাটাকে মুড়িয়ে রেখে ভেতর থেকে আস্তে আস্তে খেয়ে ফেলে। এতে সমস্ত পাতাটা হলুদ হয়ে যায়, এজন্য দূরে থেকে দেখলে মনে হবে যে গাছের পাতা হলুদ হয়ে গেছে। আমাদের জমিতে পার্চিং আছে এবং অল্প পরিমাণ জমিতে আছে। কৃষকদেরকে অনুমোদিত বালাইনাশক তিন বার দিতে হবে। এটা এক সপ্তাহ পর পর তারা যদি তিন বার স্প্রে করে তাহলে এই পোকার আক্রমণ আর থাকবেনা এবং পোকার আক্রমণের ফলে ফলনেও কোন সমস্যা হবেনা, ফলনটা স্বাভাবিক থাকবে।

পলাশ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আমীরুল ইসলাম আমন ক্ষেতে পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণের কথা স্বীকার করলেও তবে তা খুব সামান্য বলে জানিয়েছেন। পোকা দমনে কৃষকদের অনুমোদিত কীটনাশক প্রয়োগের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।



এই পাতার আরও সংবাদ:-





DMCA.com Protection Status
টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-নরসিংদী প্রতিদিন-
Theme Customized BY WooHostBD