1. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  2. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  3. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  4. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  5. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৯:৫৩ অপরাহ্ন

বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০

মাধবদীতে রেলওয়ের জমিতে স্থায়ী নির্মাণ- ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ সম্মেলন

খন্দকার শাহিন | নরসিংদী প্রতিদিন-
  • প্রকাশের তারিখ | মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৩৪ পাঠক

বাংলাদেশ রেলওয়ের অধীনে নরসিংদী ও নারায়ণগঞ্জ বন্দরে চলাচলের সাবেক রেল সড়কের মাধবদীর অংশে স্থাপনা নির্মাণ করার জন্য জমি নিয়ে চলছে কারাকারি। এ সরকারী জমীর মালিকানা দাবী করে সোমবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে মাধবদীতে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা ও বানোয়াট সাংবাদিক সম্মেলন করেন মানিক চন্দ্র কর্মকার ও তার বড় ছেলে অর্জুন চন্দ্র কর্মকার। এসময় সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন রেলের জমি সম্প্রতি ভোগদখলে থাকা চৌদ্দপাইকা গ্রামের এমএ হান্নান এর ছেলে এমএ শাহীন মাহমুদ বাবুল,শাহেদ আলীর ছেলে মোতালিব মিয়া ও ছোট মাধবদী এলাকার মিজানুর রহমান এর ছেলে মামুন মিয়াগংদের কাছ থেকে মোট ১১.৮০ (এগার দশমিক আশি) শতাংশ রেলের জমি খরিদ সূত্রে ভোগদখল করে আসছে। এতে ঘর নির্মাণ করতে গেলে বাঁধার সম্মূখীন হয়। পরে মহিষাশুড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনামুল হক শাহীন ও মাধবদী থানার সহযোগীতায় শান্তিপূর্ণ ভাবে ঘর নির্মাণ করে আসছে। এতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের মাধবদী থানা শাখার সভাপতি মাসুদ রানা ও সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন শাহীনসহ ওই স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তাদের ঘর নির্মাণ কাজের শ্রমিকদের মারধর করে কাজে বাধা দেয় ও ছাত্রলীগ কর্মীদের বিরুদ্ধে ৬০লাখ টাকা চাঁদা দাবি করার অভিযোগও করেন ওই সংবাদ সম্মেলনে। তবে ছাত্রলীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা মানিকের সংবাদ সম্মেলনকে ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করেন।
মানিক চন্দ্র কর্মকারের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক শাহীন ও আরও অনেক জানে ছাত্রলীগকর্মীরা আমার ঘর নির্মাণের জন্য চাঁদা দাবী করেছে। তবে ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক শাহীনের ফোনআলাপে স্পট হয়ে যায় ছাত্রলীগ কর্মীরা কোন চাঁদা দাবির সাথে জড়িত না।
সরেজমিনে মানিকের ঘর নির্মাণ দেখতে গেলে দেখা যায়,রেলের জমি দখল কৌশল খাটিয়ে রড ও সিমেন্টের ডালাই দিয়ে পাকা স্থায়ী ভাবে স্থাপণা নির্মাণ কাজ করছে মানিক চন্দ্র কর্মকার।
এছাড়াও নতুন এ সড়কের পাশে রেলের বাকি জমি যেন ভোগদখলে থাকা মালিকদের পৈত্রিক সম্পত্তি হয়ে গেছে। রেলওয়ের পরিতাক্ত জমিগুলো নামে বেনামে মনগড়ামত স্থায়ী স্থাপনা হিসেবে পাকা-পোক্ত নির্মাণ করে আগাম দখলে নিচ্ছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। আর এসব জমি দখল নাকি রেলকতৃপক্ষকে অবগত করে নেয়া হচ্ছে বলে জানান দখলদাররা।
নরসিংদীতে দফায় দফায় রেলওয়ের জমি বেদখলমুক্ত ও স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান করা পরও বন্ধ হয়নি রেলওয়ের জমি দখল। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরের ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জানান সুশিল সমাজের লোকজন।



সংবাদটি শেয়ার করিুন

এই পাতার আরও সংবাদ:-



বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০



DMCA.com Protection Status
টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-নরসিংদী প্রতিদিন-
Theme Customized BY WooHostBD