1. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  2. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  3. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  4. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  5. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৫৭ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০

আশ্রয়ণে ৩৫ লক্ষাধিক মানুষের পুনর্বাসন হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট | নরসিংদী প্রতিদিন
  • প্রকাশের তারিখ | রবিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৫১ পাঠক

ঘর ও জমি দেয়ার মাধ্যমে লাখো ভূমিহীন পরিবারের পুনর্বাসন হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে রোববার বাংলাদেশ এসোসিয়েশনস অফ ব্যাংকসের (বিএবি) একটি প্রতিনিধি দলকে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় ভূমিহীন-গৃহহীনদের ঘর নির্মাণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ প্রকল্পে ৩৬টি ব্যাংক অনুদান হিসেবে ১১৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা প্রদান করে।

বিএবি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদারের নেতৃত্বে বিভিন্ন ব্যাংকের চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও পরিচালকগণ অনুদানের চেক হস্তান্তর করেন।

পদ্মা ব্যাংকের পক্ষে অনুদান হস্তান্তর করেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. চৌধুরী নাফিজ সরাফাত।

পরে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব কে এম শাখাওয়াত মুন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, ‘ঘরের সঙ্গে তাদের কিছু জমিও দেয়া হচ্ছে। জীবন-জীবিকার জন্য আমরা নগদ টাকাও দিচ্ছি। পাশাপাশি ট্রেনিংও করানো হচ্ছে।

‘এসব পদক্ষেপের সুবাদে প্রতিটি মানুষ আশ্রয়ণ প্রকল্পে শুধু একটি ঘরই পাচ্ছে না। তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থাও হয়ে যাচ্ছে।

‘প্রায় সাড়ে সাত লাখ পরিবার। পাঁচজন করে ধরলেও দেখা যাচ্ছে ৩৫ লাখের বেশি মানুষের এই প্রকল্পের মাধ্যমে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা হচ্ছে।’

কেএম শাখাওয়াত মুন জানান, বিভিন্ন সময় অনুদান প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যাংকারদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান।

ব্যাংকারদের উদ্দেশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনাদের প্রদত্ত অনুদান যথাযথভাবে মানুষের কাজে লাগে। অনেক মানুষের কাজে লাগে, আপনারা হয়তো চিন্তাও করতে পারবেন না কত মানুষকে আমরা কতভাবে সাহায্য করি। মানুষের চিকিৎসা, ঘর-বাড়ি সব ব্যাপারে।

‘আশ্রয়ণে ঘর পাওয়া মানুষগুলোর হাসি, মানুষগুলোর তৃপ্তি- এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কিছু হতে পারে না।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘খুবই দুস্থ, যাদের কোনো ঠিকানা ছিল না, থাকার জায়গা ছিল না। কারও বারান্দায়, গোয়াল ঘরে, ফুটপাতে বা রাস্তাঘাটে পড়ে থাকত তারা। একটি ঘর পাওয়ার পর আসলে তাদের জীবনটাই পাল্টে গেছে।

‘অনেকে সেখানে শাক-সবজি ফলাচ্ছে, হাঁস-মুরগি পালন করছে। কুটির শিল্প করছে অনেকে। অনেকে সেখানে দোকানও দিয়েছে। তারা নিজেরাই নিজেদের মধ্যে বিনিময় করছে, ক্রয়-বিক্রয় করছে। জীবন-জীবিকার একটা পথ খুঁজে পাচ্ছে তারা। মানুষের জীবনটা পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে।

‘দেশের অধিকাংশ গৃহহীন-ভূমিহীন মানুষকে ইতোমধ্যে ঘর দেয়া হয়ে গেছে। অল্প কিছু বাকি আছে। সেগুলোও তৈরি হয়ে যাচ্ছে।’

আশ্রয়ণ প্রকল্পের প্রথম পর্বে ব্যারাক হাউজগুলোকে আরও উন্নত করে দেয়া কিংবা তাদের নতুন ডিজাইনের ঘর নির্মাণ করে দেয়ার পরিকল্পনার কথাও জানান সরকার প্রধান। পাশাপাশি ভূমিহীন-গৃহহীনদের জন্য গৃহনির্মাণে বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। বলেন, ‘শুধু সরকার না, আমরা সবাই মিলে দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যাব।’

সরকার প্রধান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে অনুসরণ করে আশ্রয়ণ প্রকল্প নেয়া হয়েছে। স্বাধীনতার পর পর জাতির পিতা উদ্যোগ নিয়েছিলেন। উদ্দেশ্য ছিল- এদেশে যারা ভূমিহীন আছে তাদেরকে তিনি ঘর দেবেন, জমি দেবেন এবং পুর্নবাসন করবেন। এ কাজটা তিনি শুরু করেছিলেন নোয়াখালীর চরে।

‘বঙ্গবন্ধুকে অনুসরণ করে প্রথমে আমরা ব্যারাক হাউজ নির্মাণ করে দিয়েছি। পরবর্তীতে আমরা আশ্রয়ণ প্রকল্প নামে একটি প্রকল্প নিলাম। এই ঘরগুলো করে দিতে আমাদের সেনাবাহিনীর হাতে দায়িত্ব দিলাম।

‘এভাবে আমরা প্রায় দেড় লাখ পরিবারকে পুনর্বাসন করে দিলাম। পরে ২০০১ থেকে ২০০৮ আমরা সরকারে ছিলাম না। ২০০৯ সালে সরকার গঠন করার পর আমরা আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ শুরু করলাম। আমরা দুই কাঠা জমি এবং একটি ঘর তৈরি করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেই।’

সব বাধা অতিক্রম করে সরকার দেশকে এগিয়ে নিচ্ছে জানিয়ে টানা তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পরিকল্পিতভাবে এগুতে পারলে যেকোনো দেশ উন্নতি করবে। আমাদের বাধা আছে, বাধা থাকবে। আমাদের একে তো হচ্ছে প্রাকৃতিক দুর্যোগ, তারপর হচ্ছে মনুষ্যসৃষ্ট দুর্যোগ। আন্তর্জাতিকভাবেও বার বার বাধা আসে।

‘করোনা, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ- সব কিছু মিলে অর্থনীতির ওপর একটু প্রভাব পড়েছে। অন্যান্য দেশের মতো আমরা বিপর্যস্ত না। আমরা কাটিয়ে উঠছি, কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছি।’

দেশকে এগিয়ে নিতে সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান সরকার প্রধান।



এই পাতার আরও সংবাদ:-



বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০



DMCA.com Protection Status
টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-নরসিংদী প্রতিদিন-
Theme Customized BY WooHostBD