1. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  2. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  3. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  4. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  5. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০

গুলিবিদ্ধ উপজেলা চেয়ারম্যানের ৯৪ দিন পর মৃত্যু, মহাসড়ক অবরোধ বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক | নরসিংদী প্রতিদিন-
  • প্রকাশের তারিখ | বুধবার, ৩১ মে, ২০২৩
  • ২৩১ পাঠক

নরসিংদীর শিবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ খান গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি দুর্বৃত্তের গুলিতে আহত হওয়ার পর থেকে তিনি রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টায় তিনি মারা যান।

এদিকে হারুনুর রশীদ খানের মৃত্যুর খবরে দায়ীদের বিচার দাবিতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ, অগ্নিসংযোগ ও বিক্ষোভ করছে এলাকাবাসী। তারা শিবপুর কলেজগেট এলাকায় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করছে।

রাত সাড়ে ৮টার দিকেও মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ চলছিল। এছাড়া ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের কামারটেক, চৈতন্যা, সৃষ্টিঘর এলাকায়ও টায়ারে আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করা হয়।

চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি সকাল সোয়া ৬টার দিকে শিবপুর পৌর এলাকার বাজার সড়কে নিজের বাসভবনে দুর্বৃত্তের ছোড়া গুলিতে আহত হন হারুনুর রশিদ খান। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তার পিঠে বিদ্ধ হওয়া দুটি গুলি বের করা হয়। সবশেষ শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়।

গুলিবিদ্ধ উপজেলা চেয়ারম্যানের ৯৪ দিন পর মৃত্যু, মহাসড়ক অবরোধ বিক্ষোভ
হারুনুর রশিদ খানের মৃত্যুর খবরে বুধবার রাতে শিবপুরে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে নেতাকর্মী-সমর্থক ও এলাকাবাসী। ছবি: নিউজবাংলা

হারুনুর রশিদ খান শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি। স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শিবপুর থানার ১০০ গজের ভেতরে বাজার এলাকায় হারুনুর রশিদের পাঁচতলা বাড়ি। বাড়িটির নিচতলায় দোকানপাট, দ্বিতীয় তলায় বেসরকারি একটি ব্যাংকের শাখা ও তৃতীয় তলায় পরিবারের সদস্যদের নিয়ে থাকতেন তিনি। দুর্বৃত্তরা তাকে গুলি করার সময় বাড়িতে ছিলেন তার স্ত্রী বেবি খানম, ছেলে আমিনুর রশিদ খান, বোন মরিয়ম খানম ও তার স্বামী শাজাহান খান।

স্বজনেরা জানান, হারুনুর রশিদ খানের পিঠে বিদ্ধ হওয়া দুটি গুলি বের করে আনা হলেও তার শরীরে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। এর প্রভাবে প্রস্রাবে সংক্রমণসহ হৃৎপিণ্ড ও কিডনিতে নানা সমস্যা দেখা দেয়। অবস্থা জটিল দেখে চিকিৎসার জন্য ৭ মে তাঁকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানকার চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন তিনি। কিন্তু ১৯ মে রাতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়।

এদিকে রোববার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হারুনুর রশিদ খানের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়লে উপজেলা সদরে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরদিন সকাল ১০টায় উপজেলা সদরে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করেন। এরপর থেকে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন পরিস্থিতি মোকাবেলায় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। উপজেলা সদরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুহসীন নাজির বলেন, ‘আজ (বুধবার) বিকেলে হারুন খান মারা যাওয়ার খবর শুনে দোষীদের বিচার দাবিতে রাস্তায় নামেন জনতাসহ আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীরা।’

শিবপুর মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার জানান, উপজেলা চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ খানের মৃত্যূর খবর শুনে উত্তেজিত হয়ে ওঠা জনতাকে শান্ত করতে আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে উপজেলা সদরের বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।’



সংবাদটি শেয়ার করিুন

এই পাতার আরও সংবাদ:-



বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০



DMCA.com Protection Status
টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-নরসিংদী প্রতিদিন-
Theme Customized BY WooHostBD