1. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  2. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  3. shahinit.mail@gmail.com : narsingdi : নরসিংদী প্রতিদিন
  4. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  5. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০

অকৃতকার্য ছয় শিক্ষার্থীর কাছ থেকে প্রবেশপত্রের কথা বলে টাকা নিয়ে লাপাত্তা শিক্ষক

ডেস্ক রিপোর্ট | নরসিংদী প্রতিদিন
  • প্রকাশের তারিখ | বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১৯৪ পাঠক

নরসিংদীতে এসএসসির প্রবেশপত্রের কথা বলে নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য ছয় শিক্ষার্থীর কাছ থেকে টাকা নেন এক শিক্ষক। পরীক্ষার আগে প্রবেশপত্র দেওয়ার কথা থাকলেও ফোন বন্ধ করে লাপাত্তা ওই শিক্ষক। আজ বৃহস্পতিবার বৈধ প্রবেশপত্র না থাকায় ওই ছয় শিক্ষার্থীকে পরীক্ষার হলে ঢুকতে দেয়নি রায়পুরা উপজেলার ভালুয়াকান্দি উচ্চ বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পরে কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে না পেরে কান্নায় ভেঙে পড়ে ওই শিক্ষার্থীরা।

অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম আমিনুল ইসলাম নরসিংদী ডিজিটাল গার্লস হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক তিনি। এ ঘটনার পর নরসিংদী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে অভিযোগ দিয়েছে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা।

অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা জানায়, নরসিংদী শহরের ব্রাহ্মন্দী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং নরসিংদী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয় ওই ছয় শিক্ষার্থী। পরে ওই শিক্ষার্থীদের ছাড়পত্র নিয়ে নিজ প্রতিষ্ঠান নরসিংদী ডিজিটাল গার্লস হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার কথা বলেন প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলাম। এ জন্য ওই শিক্ষর্থীদের কাছ থেকে জনপ্রতি ১৫ হাজার টাকা নিয়ে রেজিষ্ট্রেশন কার্ড এবং প্রবেশপত্র দেওয়ার আশ্বাস দেন ওই শিক্ষক।

এর আগে বুধবার রাত পর্যন্ত প্রবেশপত্র দেওয়ার আশ্বাসের পর শিক্ষার্থীদের রায়পুরা উপজেলার বালুয়াকান্দী উচ্চ বিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার কথা বলে মোবাইলফোন বন্ধ করে লাপাত্তা শিক্ষক আমিনুল। অন্যদিকে প্রবেশপত্র পাওয়ার আশায় বৃহস্পতিবার পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে সেখানে বৈধ কাগজপত্র ছাড়া হলে প্রবেশ করতে পারেনি ওই ছয় শিক্ষার্থী। এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়ে শিক্ষার্থীরা। পরে তারা সেখান থেকে ফিরে নরসিংদী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এসে অভিযোগ করে। পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার পাশাপাশি অভিযুক্ত শিক্ষকের বিচার দাবি করে তারা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ড. বদিউল আলম বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। তবে বিদ্যালয়টির অনুমোদনের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। অভিযুক্ত শিক্ষককের বিরুদ্ধে দ্রুতই প্রচলিত আইনের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাশাপাশি অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদেরও প্রতারকদের হাত থেকে সাবধানতা অবলম্বনের আহ্বান জানান জেলা প্রশাসক।



সংবাদটি শেয়ার করিুন

এই পাতার আরও সংবাদ:-



বিজ্ঞাপণ দিতে ০১৭১৮৯০২০১০



DMCA.com Protection Status
টিম-নরসিংদী প্রতিদিন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে শাহিন আইটি এর একটি প্রতিষ্ঠান-নরসিংদী প্রতিদিন-
Theme Customized BY WooHostBD