| ১৯শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী | সোমবার

সিপিএল-২০১৮: ক্রিকেটখোর টাইগার্স বনাম ক্রিকেটখোর লায়ন্স

খন্দকার শাহিন,নরসিংদী প্রতিদিন,বৃহস্পতিবার,১৯ এপ্রিল ২০১৮: প্রতি বছরের ন্যায় এবারো দেশ-বিদেশের জনপ্রিয় ফেসবুক গ্রুপ ‘ক্রিকেটখোর’ আয়োজিত ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ‘ক্রিকেটখোর প্রিমিয়ার লীগ(সিপিএল-২০১৮) অনুষ্ঠিত হবে শুক্রবার ২০ এপ্রিল। যাত্রাবাড়ীর সংলগ্ন শ্যামপুরের ওয়াসা মাঠে এ গ্রুপের সেরা ক্রিকেটারদের নিয়ে সিপিএল এর সপ্তম আসর মাতাবে আটটি দল। নক আউট ভিক্তিক এ টুর্নামেন্টের প্রথম পর্বে মাঠে নামবে ক্রিকেটখোর টাইগার্স বনাম ক্রিকেটখোর লায়ন্স।

ক্রিকেটখোর টাইগার্সঃ ১. ফয়সাল তিতুমীর (অধিনায়ক)। ২. আল-আমিন (সহ-অধিনায়ক)। ৩. ফাহাদ। ৪. আল আমিন (২)। ৫. সৈকত নাদিম রাদ। ৬. রিজভী। ৭. প্রিন্স। ৮. মিমো। ৯. আলীমুল করিম পিটু। ১০. অচেনা আশরাফুল। ১১. সৈয়দ আজাদ।

ক্রিকেটখোর লায়ন্সঃ ১. সাদ্দাম হোসেন সেলিম (অধিনায়ক)। ২. ইসহাক হোসেন (সহ-অধিনায়ক)। ৩. মোঃ সাজ্জাদুল হক রানা (উইকেটরক্ষক)। ৪. রাহাদ রাকিব। ৫. রিয়াদ শুচি। ৬. মাজহারুল ইসলাম জিসান। ৭. জিনিয়া আল আমিন। ৮. হানিফ উদ্দিন পারভেজ। ৯. শাহরিয়ার সালমান। ১০. জহির ইসলাম। ১১. রাসেল আহমেদ দিপু।

উত্তেজনাকর এই ম্যাচে ক্রিকেটখোর টাইগার্স এবং ক্রিকেটখোর লায়ন্স দুই দলের অধিনায়করাই শতভাগ আশাবাদী। ক্রিকেটখোর টাইগার্সে ব্যাটসম্যান হিসেবে থাকছে সৈকত, রিজভী, মিমো, নাজিমরা। দলের প্রধান চমক হিসেবে থাকছে অধিনায়ক নিজেই। শত ব্যস্ততার পরও ক্রিকেটখোরকে সময় দিয়ে টাইগার্সের অধিনায়কত্ব করবেন যমুনা টিভির সাবেক স্পোর্টস রিপোর্টার এবং বর্তমান বিবিসি বাংলায় কর্মরত সাংবাদিক ফয়সাল তিতুমির। অনিয়মিত বেশকিছু প্লেয়ার একাদশে থাকলেও ট্রাম্প কার্ড হিসেবে অলরাউন্ডার সৈকতকে ব্যবহার করতে পারবেন অধিনায়ক। তাছাড়াও দলে আছেন আল আমিনের মতো বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান। যার সেন্ট্রাল সিপিএলের পাশাপাশি নরসিংদী, নোয়াখালী সিপিএল কাঁপিয়ে আসার রেকর্ডও রয়েছে। অন্যদিকে ক্রিকেটখোর লায়ন্সের নেতৃত্ব দিবেন ক্রিকেটখোর নরসিংদী কমিউনিটির আয়োজক এবং ক্রিকেটখোর নরসিংদী জোন একাদশের অধিনায়ক সাদ্দাম হোসেন সেলিম। সহ অধিনায়ক হিসেবে থাকছে উনারই সতীর্থ ইসহাক হোসেন। যিনি গত নরসিংদী সিপিএলে সাদ্দাম হোসেনের দলেরই একজন খেলোয়াড় ছিলেন। দলের ব্যাটসম্যান হিসেবে থাকছে রাহাদ রাকিব, রিয়াদ শুচি, সাজ্জাদুল হক রানাসহ অধিনায়ক নিজে। যাদের উপর একটা ভাল স্কোর আশা করছেন অধিনায়ক। বোলিং এ জাদু নিয়ে আসতে পারে শাহরিয়ার সালমান, জহির ইসলাম এবং পারভেজরা।

ইকোনমিক বল করা পারভেজ দলের প্রয়োজনে যেকোনো পজিশনে ভাল ব্যাটিংও করে থাকেন। সব মিলিয়ে দারুণ তুঙ্গে আছে ক্রিকেটখোর লায়ন্স। জেতার সম্ভাবনাঃ এরকম একটা ম্যাচে কে জয়ী হবে তা আগে থেকে বলে কঠিনই না, প্রায় অসম্ভব। দুই দলেই আছে যথেষ্ট পরিমাণ ব্যাটসম্যান, বোলার, এবং অলরাউন্ডার। সেক্ষেত্রে দুই অধিনায়কই মনে করেন দলের সেরাটা দিতে পারলে জয় বেশি দূরে না। তাই সম্ভাবনার চাকা ঝুঁকছে দুইদিকেই। বাকিটা দেখা যাবে ওয়াসা মাঠে। শুধু মাঠেই নয়! যারা মাঠে থাকতে পারবেনা তারা সম্পূর্ণ খেলাটা লাইভ দেখতে পারবে লিংকাসের ক্রিকেটখোর চ্যানেলে।

উত্তেজনাপূর্ণ এই ম্যাচের জয়ী দল ৩নং সেমিফাইনালিস্ট হয়ে প্রথম সেমিফাইনালে মুখোমুখি হবে ১নং সেমিফাইনালিস্টের বিপক্ষে। ১নং সেমিফাইনালিস্ট নির্বাচিত হবে ক্রিকেটখোর ফাইটার্স বনাম ক্রিকেটখোর ইউনাইটেডের মধ্যে জয়ী দল।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *