1. nahidprodhan143@gmail.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  2. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  3. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  4. narsingdipratidin.mail@gmail.com : narsingdi :
  5. news@narsingdipratidin.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  6. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  7. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
  8. subeditor@narsingdipratidin.com : Narsingdi Pratidin : Narsingdi Pratidin
বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ০১:২৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :



নরসিংদীতে ট্রাকচাপায় পত্রিকার এজেন্ট নিহত

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত শুক্রবার, ১১ মে, ২০১৮
পরিবার-স্বজনদের শোকপালন ছাড়া আর কিছুই করার নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক★
নরসিংদী প্রতিদিন,শুক্রবার,১১ মে ২০১৮:
নরসিংদীতে ট্রাক চাপায় মো. কামাল হোসেন (৬০) নামের বিভিন্ন সংবাদপত্রের এক এজেন্ট নিহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভেলানগর ঢাকা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় জেলা পরিষদ কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় কামাল হোসেন সাইকেলে করে ভেলানগর থেকে বিভিন্ন পত্রিকা নিয়ে পলাশ যাচ্ছিলেন। নিহত কামাল হোসেন পলাশের জিনারদী ইউনিয়নের তাঁরগাঁও এলাকার বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শী, তার সহকর্মী, পুলিশ ও পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সকাল সাড়ে ৬টায় ভেলানগর থেকে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকা নিয়ে সাইকেলে করে কামাল হোসেন জেলা পরিষদ কার্যালয়ের সামনে যাচ্ছিলেন। সেখানে পৌঁছামাত্রই পিছন দিক থেকে একটি ট্রাক তাকে চাপা দেয়। এ সময় তার সাইকেলটি ধুমরে মুচরে যায়। ট্রাকটি কামাল হোসেনকে প্রায় ১০০ গজ দূরে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে যায়। এতে তার দেহের বুকের নিচের অংশ থেকে হাঁটু পর্যন্ত আলাদা হয়ে রাস্তায় রীতিমতো পিষে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু ঘটে তার।

এ সময় মহাসড়কে তেমন লোকজন না থাকায় ঘাতক ট্রাকটি আটকানো সম্ভব হয়নি।

আশপাশের লোকজন ও তার সহকর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে পুলিশকে ও তার পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়। পরে পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

নিহতের সহকর্মী শরিয়ত উল্লাহ বলেন, আমার কাছ থেকে পত্রিকা নিয়ে যাওয়ার ৩/৪ মিনিটের মধ্যেই কামাল ভাই দুর্ঘটনার শিকার হয়। তিনি অনেক ভালো মানুষ ছিলেন। তিনি ভেলানগর থেকে পত্রিকা নিয়ে পলাশের পারুলিয়া বাজার, বিভিন্ন সরকারি দপ্তরসহ পলাশ সারকারখানা এলাকায় তা বিলি করতেন।

নিহতের ছোট ছেলে সজিব মিয়া বলেন, আব্বা বিভিন্ন পত্রিকার এজেন্ট ছিলেন। পত্রিকা বিক্রির পাশাপাশি পলাশ সারকারখানায় চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী হিসেবে কাজ করতেন। আজ ভোর ৫টায় আমাদের ঘুমের মধ্যে রেখে আব্বা পত্রিকা আনতে যান। আর এখন নিজেই চিরঘুমের মধ্যে চলে গেলেন।

নরসিংদী সদর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আল আমিন বলেন, লাশের শরীরের যে অবস্থা তাতে সুরতহাল করা ছাড়া ময়নাতদন্ত করার কোনো অবস্থা নেই। আর পরিবারের লোকজনের আপত্তিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে বিনা ময়নাতদন্তেই পরিবারের লোকজনের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

সূত্র:কালের কণ্ঠ,মনিরুজ্জামান/

follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
শাহিন আইটির একটি অঙ্গ-প্রতিষ্ঠান