1. nahidprodhan143@gmail.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  2. khandakarshahin@gmail.com : Breaking News : Breaking News
  3. laxman87barman@gmail.com : laxman barman : laxman barman
  4. narsingdipratidin.mail@gmail.com : narsingdi :
  5. news@narsingdipratidin.com : নরসিংদী প্রতিদিন : নরসিংদী প্রতিদিন
  6. msprovat@gmail.com : ms provat : ms provat
  7. hsabbirhossain542@gmail.com : সাব্বির হোসেন : সাব্বির হোসেন
  8. subeditor@narsingdipratidin.com : Narsingdi Pratidin : Narsingdi Pratidin
সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৫৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শিবপুরে বমসা’র প্রকল্প উদ্বোধন উপলক্ষে কর্মশালা অনুষ্ঠিত প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে মানবিক মেয়র কামরুলের উদ্যোগ: নরসিংদীতে সেলাই মেশিন ও হুইল চেয়ার পেল শতাধিক দুস্থ কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন যুদ্ধ রোবট উন্মোচন ইরানের আইএসের হুমকিতে আফগানিস্তান ছাড়ছে হিন্দু ও শিখরা অবশেষে ঘুম ভাঙল নারায়ণগঞ্জ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের ধর্ষনের বিচার দাবিতে ময়মনসিংহে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল বিটিভির সাবেক মহাপরিচালক ওয়াজেদ আলী খানের মৃত্যু কাপ্তাইয়ে ভ্রাম্যমান অভিযানে ৭দোকান হতে জরিমানা আদায় মাধবদীতে মানব কল্যান সেবামূলক প্রতিষ্ঠান ও ইসলামী পাঠাগারের বর্ষপূর্তি উদযাপন করোনায় ঢাকা-চট্টগ্রামে কাজ বন্ধ করে দেওয়া মানুষের ৬৮ শতাংশ চাকরি হারিয়েছে



রায়পুরায় ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণের জন্যই হত্যা করা হয়েছিল শিশু মামুনকে

রিপোর্টারের নাম
  • প্রকাশিত বুধবার, ১১ জুলাই, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক *বুধবার, ১১ জুলাই ২০১৮ খ্রি, নরসিংদী প্রতিদিন
নরসিংদীর রায়পুরায় ৭ বছরের শিশু মামুন হত্যার রহস্য উদঘাটন ও হত্যায় জড়িত মূল আসামী নাসিরকে (২২) গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। নাসির একই উপজেলার রাজনগর এলাকার জহির ইসলামের ছেলে। গ্রেপ্তারকৃত নাসির প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় স্বীকার ও ঘটনার বিবরণ দিয়েছে। বুধবার( ১১ জুলাই) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে নরসিংদীর পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন এসব তথ্য জানান। পুলিশ সুপার বলেন, গত ২০ জুন রায়পুরার হাসিমপুর এলাকার প্রবাস ফেরত সুজন মিয়ার ৭ বছর বয়সী ছেলে সুজন খেলতে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। তিনদিন পর (২৩ জুন) দুপুরে প্রতিবেশী জয়নাল মাস্টারের তিনতলা বাড়ির ছাদ থেকে শিশুটির অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের বাবা সুজন মিয়া বাদি হয়ে রায়পুরা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পরে মামলাটির তদন্তভার জেলা গোয়েন্দা পুলিশে স্থানান্তর করা হয়। এ ঘটনায় প্রথমে হত্যায় জড়িত সন্দেহে জয়নাল মাষ্টারকে আটক করা হয়। পরে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় হত্যায় জড়িত মূল আসামী নাসিরকে গ্রেপ্তার করা হলে সে জানায়, পরিকল্পনা অনুযায়ী ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায়ের জন্য শিশু মামুনকে অপহরণ ও দুইদিন অভুক্ত রাখার পর হত্যা করা হয়। সাইফুল্লাহ আল মামুন আরও বলেন, অভিযুক্ত জয়নাল মাষ্টার হত্যার মূল পরিকল্পনাকারি। সে মূলত কোন এজেন্সির হয়ে বিদেশে লোক পাঠানোর কাজ করে। নিহত মামুনের বাবা সুজন মিয়াকে জয়নাল মাষ্টারই সৌদি আরবে পাঠিয়েছিল। এমনকি সুজন মিয়া বিদেশ থেকে সকল টাকা পয়সা জয়নাল মাস্টারের নিকটই পাঠাতেন। সুজন মিয়া দেশে ফিরে সকল টাকা ব্যাংকে ডিপোজিট করে রাখেন। সেই টাকার লোভেই নিজের ছেলে ও ভাগিনাকে দিয়ে ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে নাসিরকে ভাড়া করে অপরহরণ করা হয় শিশু মামুনকে। পরবর্তীতে কেউ ফোন করেছে কিনা- ফোন বন্ধ কেন এমন তথ্য সুজন মিয়ার কাছ থেকে খোঁজখবর নেন জয়নাল মাস্টার। মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে শিশু মামুনকে হত্যা করে লাশটি পরিকল্পনামাফিক সন্দেহ থেকে বাঁচতে নিজের বাড়ির ছাদে এনে ফেলে রাখেন জয়নাল। যাতে কেউ তাকে সন্দেহ করতে না পারে। যা পরবর্তীতে গ্রেপ্তারও হওয়া মূল হত্যাকারি পুলিশের কাছে দেওয়া জবানবান্দিতে সব তথ্য দেয়।

follow and like us:
0

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো সংবাদ পড়ুন
শাহিন আইটির একটি অঙ্গ-প্রতিষ্ঠান