নরসিংদী-৪ আসন: বিএনপির নতুন কমিটি চাঙ্গা নেতাকর্মীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক,নরসিংদী প্রতিদিন,মঙ্গলবার,২ অক্টোবর ২০১৮:
নরসিংদী জেলার মনোহরদী ও বেলাব উপজেলা নিয়ে গঠিত নরসিংদী-৪ সংসদীয় আসন। প্রায় এক দশক ধরে সাংগঠনিক দুর্বলতায় ঝিমিয়ে পড়া দুই উপজেলার বিএনপির নেতাকর্মীরা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে নতুন নেতৃত্ব পেয়ে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে।

সম্প্রতি এই দুই উপজেলায় নতুন কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, চারদলীয় জোট সরকারের আমলে নরসিংদী-৪ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন অ্যাডভোকেট সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল। এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করে তিনি সব মহলের প্রশংসা কুড়ান। এক-এগারো পরবর্তী সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় বিএনপির মহাসচিব আবদুল মান্নান ভূঁইয়ার ডাকা সংস্কারে সমর্থন দেন তিনি। ওই সময় দল সম্পর্কে বিভিন্ন নেতিবাচক মন্তব্য করায় তিনি দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের বিরাগভাজন হন। এর ধারাবাহিকতায় নবম সংসদে এই আসনে বকুলকে বাদ দিয়ে বিএনপি মনোনয়ন দেয় লে. কর্নেল (অব.) জয়নাল আবেদীনকে। জয়নাল নির্বাচনে বিশাল ব্যবধানে পরাজিত হন।

নির্বাচনে মনোনয়ন না পেলেও হাল ছাড়েননি বকুল। সময়ের পালাবদলে নিজের ভুল উপলব্ধি করছেন বিএনপির সাবেক এই সংসদ সদস্য।

নিজের সংস্কারের খোলস পালটে মূল ধারায় ফিরতে দলের সব সাংগঠনিক কার্যক্রম ও আন্দোলনে ছিলেন অগ্রভাগে। কিন্তু বিএনপির মূল ধারায় বকুলের অনুপস্থিতিতে সংগঠনে অবস্থান শক্ত করেছেন কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্বাহী সদস্য লে. কর্নেল (অব.) জয়নাল আবেদীন। নবম সংসদ নির্বাচনের মতো এবারও মনোনয়নপ্রত্যাশী তিনি।

এদিকে বছরখানেক ধরে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীর তালিকায় যুক্ত হয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূইয়া জুয়েল। তিনিও দুই উপজেলায় বিভিন্ন সামাজিক ও দলীয় কার্যক্রমের পাশাপাশি বেশ কয়েকবার নেতাকর্মীদের নিয়ে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রাসহ শোডাউন করেছেন। এই তিন নেতার ত্রিমুখী লড়াইয়ে দ্বিধাবিভক্তিতে পড়ে দুই উপজেলায়ই প্রাণ হারায় বিএনপি। সাংগঠনিক কার্যক্রমে নেমে এসেছিল স্থবিরতা।

নেতাকর্মীদের দ্বিধাবিভক্তি আর স্থবিরতা কাটিয়ে দলকে চাঙ্গা করতে গত ২৭ সেপ্টেম্বর দুই উপজেলায় নতুন আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মনোহরদী উপজেলায় সাবেক সংসদ সদস্য সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুলকে আহ্বায়ক এবং তাঁরই অনুসারী আমিনুর রহমান সরকার দোলনকে সদস্যসচিব করে ১৪০ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়। এই কমিটিতে সাতজনকে যুগ্ম আহ্বায়ক করা হয়। পাশাপাশি বেলাবতে উপজেলা চেয়ারম্যান আহসান হাবীব বিপ্লবকে আহ্বায়ক ও আবদুল কাদির জলিলকে যুগ্ম সচিব করে ১৩৪ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি করা হয়। আহসান হাবীব বিপ্লবও সাখাওয়াত হোসেন বকুলের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। এই দুই উপজেলায় নতুন কমিটি গঠনের পর দলীয় দিকনির্দেশনা পেয়ে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে বিএনপির নেতাকর্মীরা।

আহসান হাবীব বিপ্লব বলেন, ‘বেলাব উপজেলা মূলত বিএনপির ঘাঁটি। এত দিন সঠিক নেতৃত্বের অভাবে নেতাকর্মীরা ছিল স্থবির। এখন নতুন নেতৃত্বে তারা আবার চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ পাওয়া গেলে বকুল ভাইয়ের নেতৃত্বে বিএনপিকে এই আসনটি উপহার দিতে পারব। ’

সরদার সাখাওয়াত হোসেন বকুল বলেন, ‘সঠিক নেতৃত্বের অভাবে ১০ বছর ধরে এখানে বিএনপি সাংগঠনিকভাবে অন্ধকারে নিমজ্জিত হচ্ছিল। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য আমার নেতৃত্বে নতুন কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। গত চার দিনেই আমরা নেতাকর্মীদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। আর আমি দলের হাইকমান্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী মাঠ অনেকটা গুছিয়ে নিয়েছি, নির্বাচনের প্রস্তুতিও নিচ্ছি। অবশ্য কমিটি হওয়ার পর থেকেই আমার নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে এরই মধ্যে তিনটি মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। তবে মামলা দিয়ে আমাদের ঠেকানো যাবে না। সময়মতো সাধারণ মানুষ ঠিকই এর জবাব দেবে। ’

খবর: কালের কণ্ঠ,নরসিংদী প্রতিনিধি,২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০

Be the first to comment on "নরসিংদী-৪ আসন: বিএনপির নতুন কমিটি চাঙ্গা নেতাকর্মীরা"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*