কর্মী সমর্থকদের অনুরোধেই আবারও প্রার্থী হতে বাধ্য হয়েছি – সিরাজুল ইসলাম মোল্লা

নিজস্ব প্রতিবেদক,বৃহস্পতিবার,নরসিংদী প্রতিদিন, ২৯ নভেম্বর ২০১৮: শিবপুরের জনগণের পাশে থাকতে ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতেই দলীয় কর্মী সমর্থকদের অনুরোধেই আবারও স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানিয়েছেন নরসিংদী-৩ (শিবপুর) আসনের সাংসদ ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সিরাজুল ইসলাম মোল্লা। বুধবার (২৮ নভেম্বর) বিকালে সহকারী রিটার্নিং অফিসারের নিকট স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে এমন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন তিনি।
তিনি বলেন, টানা দুইদিন বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় দলের দেয়া তথ্যমতে মনোনয়নপ্রাপ্ত হিসেবে আমার নাম প্রচারিত ও প্রকাশিত হয়। এতে শিবপুরের দলীয় নেতাকর্মীরা উচ্ছ্বসিত হয়েছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করে আমার মনোনয়ন না পাওয়ার খবরে হতাশ হয়েছেন কর্মী সমর্থকরা। শিবপুরে দলীয় প্রতিক নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে এবং উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমার প্রয়োজনীয়তা ছিলো বলে মনে করছিলেন শিবপুরবাসী। কেননা সাংসদ হিসেবে আমি এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন কাজ করার চেষ্টা করেছি।
এলাকার উন্নয়নের সংক্ষিপ্ত বিবরণ তুলে ধরতে গিয়ে তিনি বলেন, সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর শিবপুর উপজেলার ৫৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২০টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ৪টি কলেজ এবং ৬টি মাদ্রাসার নতুন ভবন নির্মাণসহ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন করতে সক্ষম হয়েছি। নতুন রাস্তাঘাট নির্মাণসহ পুরাতন রাস্তার সংস্কার করতে চেষ্টা করেছি। উপজেলা মডেল মসজিদ, শিবপুর পৌর ভবন ও পানি সরবরাহ প্রকল্প নির্মাণের জন্য ব্যক্তিগত খাতের প্রায় ৪ কোটি টাকা দিয়ে জমি ক্রয় করে দিয়েছি। পৌরসভা প্রতিষ্ঠার ১২ বছর পার হলেও বিগত সময়ে কেউ পৌরসভার স্থায়ী ভবনের কথা ভাবেননি। আমি এমপি হয়ে পৌর ভবনের জন্য জমি ক্রয় করে দেয়ায় পৌরবাসী আনন্দিত হয়েছেন। স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে উপজেলা হাসপাতালে সরকারিভাবে দুটি নতুন এ্যাম্বুলেন্স বরাদ্ধ এনেছি। প্রায় ৪৬ কোটি টাকা ব্যয়ে পাহাড়িয়া নদীর পাড়ে বেড়িবাধ নির্মাণ ও উপজেলার সকল নদী খনন কাজ চলমান আছে।

এছাড়া শিবপুরের অসহায় গরীব দুখী মানুষের পাশে ব্যক্তিগত সহযোগিতার হাত বাড়ানো ও সেবার চেষ্টা করে আসছি দীর্ঘদিন ধরেই। আমার ব্যক্তিগতভাবে চাওয়া পাওয়ার কিছু নেই। জনগণের সেবাতেই নিজেকে নিযুক্ত রাখতে চাই আমৃত্যু। এ জন্যই আবারও সংসদ নির্বাচনে আমার প্রার্থী হওয়া। আশা করছি শিবপুরের জনগণ আবারও আমাকে নির্বাচিত করে মহান সংসদে পাঠিয়ে এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রাখার সুযোগ দেবেন।
উল্লেখ্য, শিবপুর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসন নরসিংদী-৩ (শিবপুর)। বিএনপির সাবেক মহাসচিব ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী প্রয়াত আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া এখান থেকে টানা চারবার সংসদ সদস্য নির্বাচন হয়েছিলেন। ফলে এই আসনটি রাজনৈতিকভাবে জেলার গুরুত্বপূর্ণ আসন হিসেবে পরিচিত।

# এডমিন: লক্ষন বর্মন।

Be the first to comment on "কর্মী সমর্থকদের অনুরোধেই আবারও প্রার্থী হতে বাধ্য হয়েছি – সিরাজুল ইসলাম মোল্লা"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*