| ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং | ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ৩০শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী | মঙ্গলবার

নরসিংদীতে পর্যটকদের নজর কেড়েছে শিবপুরের চিনাদীবিল

মো.সাব্বির হোসেন | নরসিংদী প্রতিদিন-
বৃহস্পতিবার, ৭ মার্চ ২০১৯: অতি অল্প সময়ে নরসিংদীতে পর্যটকদের নজর কেড়েছে শিবপুরের চিনাদীবিল। শিবপুর উপজেলা থেকে ৮ কিলোমিটার পশ্চিমে দুলালপুর ইউনিয়নে অবস্থিত, শীতলক্ষ্যা নদীর শাখা এটি।

মানিকদি, শীমুলিয়া, দুলালপুর, বিটি চিনাদী ও দরগাহবন্ধ এই পাঁচ গ্রামের মিলন স্থলে গড়ে উঠেছে চিনাদীবিল। এই বিলের চার পাশের প্রাকৃতিক মনোরম দৃশ্য আর নীল আকাশের নৈস্বর্গিক সৌন্দর্য অনায়াসে যে কারো নজর কাড়ে। বিলের বুক চিরে নৌকা নিয়ে ভেসে বেড়ানোর আনন্টাই উপভোগ করার মতো। বিলের চারপাশের মনোরম দৃশ্য প্রকৃতিপ্রেমীদের মুগ্ধ করে তোলে। শীত মৌসুমে অতিথি পাখির আগমনে কলকাকলিতে মূখর হয়ে উঠে এই চিনাদীবিল। যান্ত্রিক কোলাহল ছেড়ে প্রকৃতির অপরুপ সৌন্দর্যে মিশে যেতে নরসিংদী জেলাসহ দেশের অন্যান্য স্থান থেকে বিনোদনপ্রেমী মানুষ ও পর্যটকরা এখানে ভিড় জমান।

দিনশেষে সূর্যের আলো যখন নীল আকাশের বুকে হেলে পড়ে আর সন্ধা ঘনিয়ে আসে ঠিক সেই মুহুর্তের দৃশ্য নজর কাড়ে সবার। বিনোদনপ্রেমীদের একে অপরের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করার দৃশ্য চোখে পড়ার মতো। সুন্দর মহুর্ত গুলো ক্যামেরাবন্ধী করতে কেউ বন্ধুদের নিয়ে,কেউবা পরিবার ও আত্মীয়স্বজনদের সাথে সেলফি তোলা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ে।

শিবপুরের ইকবাল নরসিংদী প্রতিদিনকে জানান, এই বিলের প্রাকৃতি সৌন্দর্য সত্যিই মুগ্ধ করে তোলে।চারপাশের পরিবেশটা সুন্দর ও ঝামেলামুক্ত। শিবপুরে বিনোদন কেন্দ্র থাকলেও এই স্থানটির মতো উম্মুক্ত বিশাল জায়গা নেই।

আরেক দর্শণার্থী সিনথিয়া নরসিংদী প্রতিদিনকে জানান, পরিবার নিয়ে এখানে ঘুরতে আসলাম।বিলের একপাশে নীল আকাশের বুকে সূর্য যখন হেলে পড়ে এই দৃশ্য উপভোগ করতে ভিষণ ভাল লাগে।বিকেল থেকে সন্ধা পর্যন্ত পরিবারের সাথে ভাল সময় পার করেছি।

নরসিংদী জেলা প্রশাসন ও শিবপুর জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ২০১৬ সালের ২৫ এপ্রিল প্রায় ৫ শত ৩০ বিঘার আয়তনের “স্বপ্নচিনাদী” চিনাদীবিল পর্যটন পার্কের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছিলেন ততকালীন জেলা প্রশাসক আবু হেনা মোরশেদ জামান।

Print Friendly, PDF & Email

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published.