| ২৫শে জুন, ২০১৯ ইং | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০শে শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী | মঙ্গলবার

নরসিংদীতে কেক কেনার শেষে বাড়ির ফেরার পথে শরীরে আগুন দিলো দুর্বৃত্তরা

লক্ষন বর্মন। নরসিংদী প্রতিদিন-
শুক্রবার ১৪ জুন ২০১৯:
নরসিংদীতে কেক কিনে বাড়ির ফেরার পথে শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে তাঁর শরীরের ২০ ভাগ পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। গুরুতর অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) রাত সাড়ে ৮টায় নরসিংদী পৌর এলাকার বীরপুর মহল্লায় এ ঘটনা ঘটেছে। দগ্ধ ফুলন রানী বর্মণ (২২) বীরপুর মহল্লার যোগেন্দ্র বর্মণ এর মেয়ে। সে নরসিংদীর উদয়ন
কলেজ থেকে গত বছর এইচএসসি উর্ত্তীণ হয়ে কোথাও ভর্তি হননি। অগ্নিদগ্ধের ঘটনার খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সাহেদ আহম্মেদ এবং মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দউজ্জামানসহ পুলিশ কর্মকর্তারা সদর হাসপাতালে স্বজনদের সঙ্গে কথা বলেন।

দগ্ধ কলেজ ছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা জানায়, বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি দোকান কেক কেনার শেষে বাড়ি ফিরছিল ফুলন বর্মণ। এসময় হঠাৎ করে অজ্ঞাতনামা দুইজন দুর্বৃত্ত তার হাত মুখ চেপে ধরে পাশের একটি নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে কেরোসিন ঢেলে তার শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। ফুলনের ডাক চিৎকার শুনে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নরসিংদী সদর হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ নাসিম আল ইসলাম জানান, ফুলন রানী শরীরের ২০ ভাগ পুড়ে গেছে। তার মুখে, পিঠে ও বুকে বেশ কিছু অংশ র্বাণ হয়েছে। অবস্থা খারাপ দেখে ফুলন রানীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে জরুরী ভাবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

নরসিংদী পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ বিপিএম,পিপিএম জানান, অগ্নিদগ্ধের ঘটনার খবর পেয়ে প্রথমে নরসিংদীর শহর ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক মিজানুর রহমান সদর হাসপাতালে স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে। এরপরই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সাহেদ আহম্মেদ এবং মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দউজ্জামানসহ পুলিশ কর্মকর্তারা সদর হাসপাতালে স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে। পরে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি এবং আশেপাশের লোকজনের সাথে কথা বলি। তবে কি কারনে ঘটনাটি ঘটেছে তদন্তের পর আগুন লাগানোর কারণ ও কারা ঘটনার সাথে জড়িত বলা যাবে। ঘটনাস্থল থেকে একটি কেরোসিন জাতীয় বোতল ও দিশলায় এবং ভিকটিম এর শরীরের পোড়া চুল উদ্ধার করি। ভিকটিমের শরীরের আগুন নোভানোর জন্য চট ব্যবহার করা হয় সেইটিকেও আলামত হিসেবে জব্ধ করি। আসামীদের গ্রেফতারে জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *