| ২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং | ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৬ই জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী | শনিবার

অবশেষে ছেলের অট্টালিকার রাজ পালঙ্কে বৃদ্ধা মা

নিজস্ব প্রতিবেদক | নরসিংদী প্রতিদিন-
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯:
নরসিংদীর পলাশে অবশেষে ছেলের অট্টালিকায় ঠাই মিলেছে প্রায় শতবর্ষী বৃদ্ধা মা মরিয়ম বেগমের। তিনি ছেলের রাজ পালঙ্কে শুয়েই বাকি জীবন কাটাতে চান। এর আগে “ছেলে থাকেন অট্টালিকায়, মা ভাড়ার ঘরে” বিভিন্ন গণমাধ্যমেও এ ধরণের সংবাদ প্রকাশ হলে বিষয়টি নরসিংদীর পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদের দৃষ্টিগোচর হলে বৃদ্ধার ছেলে পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা কিরণ শিকদারকে আটক করে পুলিশ।
বৃদ্ধা মায়ের মানবেতর জীবনযাপনের ঘটনাটি নিয়ে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ এলাকায় আলোচনার ঝড় উঠে। ছেলে কিরণ শিকদারকে আটকের পর মাকে নিজের কাছে রাখা হবে এমন অঙ্গিকার করলে পুলিশ তাকে ছেড়ে দেয়।
মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে সরেজমিন কিরণ শিকাদারের ভবনে গিয়ে দেখা যায়, তিনতলা ভবনের ২য় তলায় মাকে নিয়ে অবস্থান করছেন কিরণ ও তার পরিবারের সদস্যরা। সেখানে অনেকটা হাসি-খুশিতে সময় পার করছেন বৃদ্ধা মা মরিয়ম বেগম। দুইদিন আগেও যেই বৃদ্ধা মা ভাড়া করা ভাঙ্গা ঘরের মেঝেতে দেয়া বিছানায় ঘুমিয়েছিলেন এখন তিনি ছেলের অট্টালিকায় আরাম আয়েশে সময় পার করছেন।
ছেলের বাসায় এসে কেমন লাগছে জানতে চাইলে মরিয়ম বেগম সাংবাদিকদের বলেন, নিজের বাসায় এসে আমার অনেক ভাল লাগছে। একা একা আমার কোথাও থাকতে ভাল লাগে না। জীবনের বাকি দিনগুলো ছেলে, নাতি-নাতনি ও পুত্রবধূকে নিয়েই থাকতে চাই।
বৃদ্ধা মায়ের ছেলে কিরণ শিকদার জানান, মাকে কাছে পেয়ে আমারও খুব আনন্দ লাগছে। মার যেখানে ভাল লাগবে সেখানেই থাকবেন। যতদিন বেঁচে থাকি নিজের কাছে রেখে মায়ের সেবাযতœ করে যাবো।

উল্লেখ্য, স্ত্রীর কথায় গত রমজান মাসে বৃদ্ধ মাকে পার্শ্ববর্তী নতুন বাজার এলাকার জনৈক গফুর মিয়ার একটি ভাঙ্গা টিনের ঘর ভাড়া করে সেখানে রাখেন একমাত্র ছেলে কিরণ শিকদার। সেখানে গিয়ে ছেলে মাঝেমধ্যে কিছু বাজার সদাই কিনে দিয়ে দায়িত্ব শেষ করলেও বৃদ্ধা মরিয়মের দেখাশোনা করতেন পাশের ভাড়াটিয়ারা। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়।

সময় বাচাঁতে ঘরে বসে কেনা-কাটা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *